মেইন ম্যেনু

‘জয় বাংলা স্লোগান নজরুলের সৃষ্টি’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘জয়বাংলা’ শ্লোগানকে অনেকে হিন্দুদের শ্লোগান বলে। তবে বঙ্গবন্ধু ‘জয়বাংলা’ শ্লোগানটি নজরুলের কবিতা থেকে নিয়েছিলেন।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘কবি কাজী নজরুল ইসলাম তার কবিতার মাধ্যমে বাংলা ভাষাকে সমৃদ্ধ করেছেন। নজরুল প্রেরণা ও চেতনার কবি। তার কবিতা ও গানে অসাম্প্রদায়িকতাকে ফুটিয়ে তুলেছেন। তার চেতনাকে ধারণ করে আমাদের অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের পথে এগিয়ে যেতে হবে।’

সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টা ৩৫ মিনিটে কুমিল্লা মহানগরীরর টাউল হল মাঠে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ও জেলা প্রশাসন আয়োজিত কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৬তম জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, `কবি নজরুল এমন একজন কবি, যিনি সমাজের সর্বস্তরের মানুষের জন্য লিখেছেন। তিনি নারীর অধিকারের কথা লিখেছেন। তার লেখনির মাধ্যেমে কুলি, মুজুর থেকে শুরু করে সব পেশার মানুষের কথাই উঠে এসেছে।’

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ও নজরুল ইনস্টিটিউটের ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক এমিরিটাস রফিকুল ইসলাম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আক্তারী মমতাজ। নজরুল স্মারক বক্তা ছিলেন অধ্যাপক শান্তনু কায়সার। ধন্যবাদ জানান জেলা প্রশাসক হাসানুজ্জমান কল্লোল।

এর আগে তিনি ১০টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৯টি প্রকল্পের ভিত্তি স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রকল্পগুলি হলো- কুমিল্লা বিবির বাজার স্থলবন্দর সড়ক, কুমিল্লা ইপিজেড এর তরল বর্জ্য পরিশোধনাগার, চৌদ্দগ্রাম জেলা পরিষদ ডাকবাংলো, দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য নির্মিত হোস্টেল, লাকসাম উপজেলা মৎস্য ভবন কাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র।

মেঘনা উপজেলার কাঠালিয়া নদীর উপর নির্মিত সেতু, মেঘনা উপজেলার পারারবন্দ নদীর উপর নির্মিত সেতু, ময়নামতি মেডিকেল কলেজ, নবনির্মিত চৌদ্দগ্রাম থানা ভবন

কুমিল্লা শহরের শাসনগাছায় রেলওয়ে ওভারপাস নির্মাণ প্রকল্প, বুড়িচং উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন স্থাপন প্রকল্প, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন পরিদপ্তর আধুনিকায়ন ও এর কুমিল্লা জেলা কার্যালয় ভবন।

বিএসটিআই এর জেলা কার্যালয়, কুমিল্লা বিখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী শচীন দেব বর্মণের বাড়ি সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্প, অটিস্টিক শিশুদের জন্য নির্মিতব্য হিউম্যান কনসার্ন ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, বঙ্গবন্ধু ‘ল’ কলেজ ভবন নির্মাণ প্রকল্প, কুমিল্লা প্রেসক্লাবে স্থাপিত কুমিল্লার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের মুর‌্যাল, বরুড়ার পয়ালগাছা টেকনিক্যাল স্কুল ও কুমিল্লা জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ। এসব প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ২৪৩ কোটি ৩৪ লাখ ৭৭ হাজার টাকা।

এর আগে বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী একটি বিশেষ হেলিকপ্টার কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়াম হেলিপ্যাডে অবতরণ করে।






মন্তব্য চালু নেই