মেইন ম্যেনু

জ্বীনের বাদশা সেজে তরুণীকে রাতভর ধর্ষণ

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে জ্বীনের বাদশা সেজে বিশাল বিত্ত-বৈভবের মালিক বানিয়ে দেয়ার লোভ দেখিয়ে হোটেলে নিয়ে এক তরুণীকে রাতভর ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এবং এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিষয়টি শেষ পর্যন্ত থানা পর্যন্ত গড়ায়। অবশেষে তাজেল নামের সেই ‘কথিত’ জ্বীনের বাদশাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

থানা সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় তাজেল (২০) মোবাইলে গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জের মৃত আলমের স্ত্রী তামান্না (২৮)কে ফোন দিয়ে নিজেকে জ্বীনের বাদশা হিসাবে পরিচয় দেয় এবং ফোনে তামান্নাকে বিপুল সম্পদের মালিক বানিয়ে দেয়ার লোভ দেখায় এবং তাকে গোবিন্দগঞ্জে থানা মোড় নামক স্থানে যেতে বলে। পরে তামান্নাকে কৌশলে ”আল-ছাদেক আবাসিক হোটেলের নীচ তলার ০৬ নং রুম নিয়ে যায় এবং সেখানে তাকে আটকে রেখে রাতভর ধর্ষণ করে।

বিষয়টি টের পেয়ে হোটেলের লোকজন শনিবার সন্ধ্যায় পুলিশকে খবর দেয়। পরে থানার এসআই আক্তার হোসেন হোটেল রুম থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং ধর্ষক কথিত জ্বীনের বাদশাকে গ্রেপ্তার করে। প্রতারক তাজেল গোবিন্দগঞ্জের নলডাঙ্গা গোবিন্দপুর গ্রামের সাজু মিয়ার পুত্র বলে জানা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই