মেইন ম্যেনু

জেনে নিন সঙ্গীর সাথে ঝগড়া এড়ানোর উপায় !

প্রতিটি সম্পর্কে ঝগড়া একটি স্বাভাবিক ব্যাপার। কখনও কখনও ঝগড়ার ফলে সম্পর্কের গভীরতা আরও বৃদ্ধি পায়। আবার অতিমাত্রায় ঝগড়ার ফলে সম্পর্কের সমাপ্তিও ঘটে। তাই অবশ্যই সম্পর্কের প্রতি রক্ষণাত্মক হতে হবে। একে-অপরকে বোঝার চেষ্টা করতে হবে। এরপরও ছোটখাটো ঝগড়া-বিবাদ তো লেগেই থাকে। তবে এসব ঝগড়া এড়ানোর কিছু কার্যকরী উপায় জেনে নিন-

১. কথা বলুন:
ঝগড়ার কারণে কখনও রাগ করে কথা বলা বন্ধ করবেন না। মনে রাখবেন, সমস্যা যত বড় হোক না কেন, কথা বলে যেকোনো সমস্যা খুব দ্রুত সমাধান করা যায়। কথা না বলে থাকলে, রাগের পরিমাণও বাড়তে থাকে। বেশীরভাগ ঝগড়া ভুল-বুঝাবুঝির কারণে হয়ে থাকে। তাই, কথা বলে দ্রুত সে ভুল ভাঙ্গতে হবে। ঠাণ্ডা মাথায় একে অপরের সাথে কথা বলুন, সব সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন।

২. সঙ্গী কথা বলছে না?
অনেকেই রাগের বশত কথা বলতে পছন্দ করেন না। তারা কিছুক্ষণের জন্য একাকীত্ব পছন্দ করেন। আপনার সঙ্গী যদি সেই তালিকার অন্তর্ভুক্ত হয়, সেক্ষেত্রে আপনিও তাকে কিছু সময় দিন। তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে সে আরও দূরে যেতে চায়, তাই আপনিও একটু সময় নিন। তবে অবশ্যই তার থেকে দূরে যাবেন না। সে যদি যোগাযোগের সব মাধ্যম বন্ধ করে দেয়, তাহলে একটু অপেক্ষা করুন। তবে আপনি তার মোবাইলে ম্যাসেজ করে রাখতে পারেন। সেখানে ঝগড়ার ব্যাপারে কোন কথা উল্লেখ না করে, আপনি তার প্রতি কতটা দায়িত্বশীল, সে আপনার জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা বুঝিয়ে দিন। সে যখন ম্যাসেজগুলো পড়বে, তখন তার রাগ আস্তে আস্তে কমে যাবে। তারপর সামনা-সামনি কথা বলুন।

৩. আমি বা তুমি এর পরিবর্তে আমাদের বলতে শিখুন:
যে কোন ঝগড়ার পেছনে কখনও একজনের, কখনও দুইজনের আবার কখনও তৃতীয় মানুষের হাত থাকে। ঝগড়ার জন্য যদি আপনার দোষ থাকে, তাহলে অবলীলায় তা মেনে নিয়ে সঙ্গীর কাছে ক্ষমা চেয়ে নিন। এতে আপনি ছোট হবেন না, বরং আপনাদের সম্পর্কের পবিত্রতা আরও বৃদ্ধি পাবে। যদি আপনার সঙ্গীর ভুল থাকে তাহলে, “সব তোমার দোষ” কথাটি বলা থেকে অবশ্যই বিরত থাকুন। আমাদের ভুল হয়েছে, এই কথা দিয়ে আপনাদের আলোচনা শুরু করুন। এতে আপনার সঙ্গীর বিরক্তিভাব দূর হয়ে যাবে। তিনিও সম্পর্কের প্রতি আরও গুরুত্ব আরোপ করবে।

৪. হাতে হাত, চোখে চোখ:
সঙ্গীর হাতে হাত ও চোখে চোখ রেখে কথা বলুন। “ম্যাজিকেল টাচ” অর্থাৎ যাদুর স্পর্শ- এই শব্দটি শুনেছেন কখনও? যখন আপনি তার হাত ধরে চোখে চোখ রেখে কথা বলবেন, তখন তার আপনার উপর বিশ্বাসের মাত্রা আরও বৃদ্ধি পাবে। সে বুঝতে পারবে, যত কিছুই হোক আপনি তাকে ছেড়ে কখনও যাবেন না। আমার মনে হয়, তখন আর ঝগড়ার কোন বিষয় আপনাদের মাঝে থাকবে না। আর কথা অবশ্যই স্বাভাবিকভাবে বলবেন, উত্তেজিত হবেন না। এতে তার মনঃকষ্টের সৃষ্টি হবে।

৫. রসিকতা করুন:
আপনার সঙ্গী ঝগড়া শুরু করার সাথে সাথে তাকে বিভিন্ন হাসির কৌতুক শুনিয়ে দিন। দেখবেন তার মেজাজে পরিবর্তন চলে আসবে। তখন আর ঝগড়ার শুরুই হবে না। তাহলে আপনার শেষ করার জন্যও কোন পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে না।

সব সম্পর্কে কথা কাটাকাটি চলে। কখনও কখনও অনেক ঝগড়া-বিবাদও হয়। তবে ঝগড়ার পর যত দ্রুত তা মিটিয়ে ফেলা যায়, সম্পর্ক তত বেশি সুন্দর হয়।






মন্তব্য চালু নেই