মেইন ম্যেনু

জামায়াত-তৃণমূল অর্থ লেনদেন তদন্তে কমিটি করছেন শেখ হাসিনা

ভারতের সারদা গ্রুপের টাকা তৃণমূল কংগ্রেসের হাত ঘুরে কী ভাবে জামায়াতে ইসলামির জঙ্গি আন্দোলন ও নাশকতায় যোগ হলো তা অনুসন্ধান করতে একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি তৈরি করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ প্রকাশ করেছে কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা।

আনন্দবাজার তাদের কলকাতা প্রতিনিধির সূত্রে প্রকাশিত সংবাদে জানায়, পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ বাংলাদেশের মৌলবাদীদের হাতে গিয়েছে শুক্রবার আনন্দবাজারে এই খবর প্রকাশের পরই তিনি এই কমিটি গড়ার নির্দেশ দিয়েছেন। শুক্রবার বাংলাদেশে সাপ্তাহিক ছুটির দিন। তার মধ্যেই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পালনে তৎপর হয়েছেন সচিবরা। এক জন ক্যাবিনেট মন্ত্রীর নেতৃত্বে কয়েক জন সাংসদ ও সচিবকে নিয়ে এই কমিটি গড়া হতে পারে বলে সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে।

সংবাদে আরও প্রকাশ, জঙ্গি কার্যকলাপ প্রতিরোধে আওয়ামী লিগের প্রবীণ নেতা আমির হোসেন আমুর নেতৃত্বে ইতিমধ্যেই একটি সরকারি কমিটি গড়েছেন হাসিনা। তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুও এই কমিটিতে রয়েছেন। তাঁদেরও বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু আনন্দবাজারকে বলেন, ভোটের স্বার্থে জঙ্গিদের নিয়ে রাজনীতি অত্যন্ত বিপজ্জনক প্রবণতা। বাংলাদেশ ইতিমধ্যেই এর মাসুল দিচ্ছে। দু’দেশের রাজনীতিকদেরই এই প্রবণতা থেকে দূরে থাকা উচিত।

উল্লেখ্য, এর আগে ভারতের গোয়েন্দা রিপোর্টের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানায়, সারদার বেশ কিছু অ্যাম্বুল্যান্সে কাঁচা টাকার বান্ডিল ভরে তা নিয়ে যাওয়া হতো বনগাঁ, বসিরহাট, নদিয়া, মালদহ, বালুরঘাট ও কোচবিহারের সীমান্ত সংলগ্ন অঞ্চলে। তার পরে তা বাংলাদেশি টাকা, ডলার বা ইউরোয় পরিবর্তন করে জামাতের এজেন্টদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।






মন্তব্য চালু নেই