মেইন ম্যেনু

জামায়াত আন্তর্জাতিক জঙ্গিদের সহযোদ্ধা : সৈয়দ আশরাফ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, ‘জামায়াতে ইসলামী বিভিন্ন আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠনের সহযোদ্ধা।
সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সেলের উদ্যোগে ২০১৩ সালে বিএনপি-জামায়াতের তাণ্ডব নিয়ে নির্মিত ‘রক্তাক্ত বাংলাদেশ’ শীর্ষক ডিভিডির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘যুদ্ধ কখন শেষ হবে? অপশক্তি জামায়াত, তাদের দোসর সহযোদ্ধারা বিশ্বের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। তা আমাদের এখানে আসতে বেশি দেরি হবে না। আজকে কেউই কোথাও এদের হাত থেকে নিরাপদ নয়।’
তিনি বলেন, ‘তাদের বিরুদ্ধে আমাদের সংগ্রাম অনেক আগেই শুরু করেছি। জামায়াত এখানে একটা নাম। এরা কোথায়ও আল কায়দা, কোথাও তালেবান, কোথাও আইএস। এরা মানবতার শত্রু। যেখানেই সুযোগ হয় সেখানেই তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।’
আশরাফ বলেন, ‘আমরা চাই আর না চাই এ যুদ্ধ আমাদের ওপর আসবেই। এ যুদ্ধ আমাদের এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। এ যুদ্ধে আমাদের জয় লাভ করতে হবে।’
জামায়াতের কড়া সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘একাত্তরে আমরা জামায়াতের তাণ্ডব দেখেছি। আমাদের হিটলারের তাণ্ডব দেখার সুযোগ হয়নি। তবে এখন তাদের (জামায়াত) তাণ্ডব মর্মে মর্মে উপলব্ধি করছি।’
ডিভিডি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘৭১ এ তারা যে তাণ্ডব চালিয়েছে এ ভিডিও চিত্র তারই আরেকটা কপি।’
মানবতার যুদ্ধে কেউই নিরপেক্ষ থাকতে পারে না মন্তব্য করে আশরাফ বলেন, ‘আমরা কেউ নিরপেক্ষ না। আজকে সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, আইনজীবী কেউই আসলে নিরপেক্ষ না। যারা নিজেদের নিরপেক্ষ বলেন তারা স্বীকার করতে চান না তারা কোনো পক্ষের লোক।’
মিডিয়া, ভিডিও চিত্র, লেখনি, যুক্তিতর্কের মাধ্যমে সন্ত্রাসী তাণ্ডবের বিরুদ্ধে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে সবাইকে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ‘বিএনপি-জামায়াতে তাণ্ডব: রক্তাক্ত বাংলাদেশ’ শীর্ষক ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। ভিডিও চিত্রে ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ও মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচার বানচালে বিএনপি-জামায়াতের সহিংসতার তথ্যচিত্র তুলে ধরা হয়।
অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন- বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, সম রেজাউল করিম, রোকেয়া কবির।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অসীম কুমার উকিল।






মন্তব্য চালু নেই