মেইন ম্যেনু

জানুয়ারিতে নির্বাচন আদায়ে মাঠে নামছে বিএনপি

নতুন বছরের প্রথম মাসেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আদায় করতে চায় বিএনপি জোট এবং এর মিত্র দলগুলো। এ লক্ষ্যেই তারা বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

ইতোমধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ঘোষণা দিয়েছেন তার দল ঈদের পরই সরকার পতনের কর্মসূচিতে যাবে। নতুন আন্দোলন শুরু করবে তারা।

এদিকে সব দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে বিএনপি সরকারকে সংলাপের তাগিদ দিয়ে যাচ্ছে। দলের প্রধান অনতিবিলম্বে আলোচনার মাধ্যমে নতুন নির্বাচনের দাবি করেছেন। দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সংলাপ না হলে জনগণ আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার বিদায় করবে।

দলের বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, আগামী জানুয়ারির মধ্যেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য বিএনপির পরিকল্পনা রয়েছে। ধর্মীয় মূল্যবোধের কারণে কোরবানীর আগে রাজপথের কঠোর আন্দোলন সম্ভব নয়। তবে এই সময়টুকু বিএনপি হেলায় কাটাবে না। দলের নেতাকর্মী এবং নির্বাচন প্রশ্নে মিত্রদের মধ্যে যে মতবিরোধ আছে তা কাটিয়ে উঠতে তৎপর থাকবে। আন্তর্জাতিক মহলে বিএনপির দাবির যৌক্তিকতা তুলে ধরে সরকারের প্রতি চাপ প্রয়োগ করবে।

দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান আন্তর্জাতিক সম্পর্ক উন্নয়ন কমিটির মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মহলে বিএনপির অবস্থান তুলেও ধরছেন। দলের ‘পরীক্ষিত-ত্যাগী’ নেতা হিসেবে পরিচিত যারা অভিমান করে দূরে রয়েছেন তাদের সঙ্গেও তারেক রহমান আন্দোলন কৌশল নিয়ে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করছেন।

দলীয় সূত্র জানায়, ২০১৪-২০১৫ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট নিয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া না দিলেও এ নিয়ে দলের মধ্যে যারা কাজ করেন তারা বিষয়টিতে গভীর নজর রাখছেন। সরকার পতনের আন্দোলনে বাজেট ইস্যুকে বিএনপির অন্যতম হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে বলে দলটির নেতাকর্মীদের ধারণা।

কারণ প্রস্তাবিত বাজেট বাস্তবায়নের সক্ষমতা বর্তমান সরকারের নেই। পাশাপাশি এলিট ফোর্স র‌্যাব বিলুপ্তির দাবিতে দেশে-বিদেশে জনমত গঠন ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং ধর্মীয় সংখ্যা লঘুদের ওপর ক্ষমতাসীন নেতাকর্মীদের অমানবিক আচরণগুলো বিএনপি জনগণের সামনে তুলে ধরবে।

এছাড়াও আওয়ামী লীগ সরকারের গত আমল থেকে এ পর্যন্ত যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেই সব পরিবারের সদস্যদের সেন্টিমেন্টও দেশের জনগণ এবং আন্তর্জাতিক মহলে প্রচার করবে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক একজন উপদেষ্টা বলেছেন, ‘শেখ হাসিনার এক তরফা নির্বাচনে বর্তমান সরকার আন্তর্জাতিক মহলে গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের ঢাকা সফরের মাধ্যমেই বাংলাদেশের রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ হবে।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহাবুব হোসেন বলেন, ‘আওয়ামী লীগের যে অবস্থা তার জন্য কারো আন্দোলন লাগবে না। নিজেদের মধ্যে যে হত্যাযজ্ঞ শুরু করেছে তাতে খুব শিগগিরই তারা নিজেরাই নিজেদের পতন ডেকে আনবে।’






মন্তব্য চালু নেই