মেইন ম্যেনু

গরুর পিছে হেলিকপ্টার, অবশেষে গুলি করে হত্যা !

যুক্তরাজ্যে গরু নিয়ে এক মহাকাণ্ড ঘটে গেছে। এক গরুর পিছে হেলিকপ্টার ও পুলিশের গাড়ি রীতিমতো হুলুস্থুল ফেলে দিয়েছিল। অবশেষে গরুটিকে গুলি করে হত্যা করা হয়!

এ গরু কাহিনী বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমে শিরোনাম হয়ে উঠেছে। মাথার ওপর চক্কর দিচ্ছে হেলিকপ্টার, চারপাশ ঘিরে রেখেছে পুলিশের অন্তত ২০টি গাড়ি, স্থানে স্থানে অবস্থান নিয়েছে ৬ জন স্নাইপার। এ ঘটনায় শহরের মানুষ হতভম্ব!

শহরে টানটান উত্তেজনা। হয় আত্মসমর্পণ, নয়তো সরাসরি গুলি। শেষ পর্যন্ত পুলিশের সেই সিদ্ধান্ত। পিস্তলের এক রাউন্ড গুলি মাথায় বিদ্ধ হয়ে মারা যায় ভিলেন। তবে এই ভিলেন কোনো মানুষ নয়; নিরীহ গরুর বাছুর! ঘটনাটি ঘটেছে সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে নর্দামব্রিয়াতে।

গত রোববার বিকেলে কুকুরের তাড়া খেয়ে ‘বেসি’ নামের ওই বছুরসহ ৩টি গরু নর্থ টাইনিসাইডের রাইজিং সান কাউন্ট্রি পার্ক হতে বেরিয়ে যায়। পরে ঘটনাটি পুলিশকে অবহিত করা হলে দুটি গরু পুলিশ উদ্ধার করে।

কিন্তু বাধে বিপত্তি! ছুটতে ছুটতে ‘বেসি’ রাস্তার মাঝখানে অবস্থান নেয়। এ অবস্থায় বাছুরটিকে সেখান থেকে সরাতে ছুটে আসে অন্তত ২০ গাড়ি পুলিশ, ৬ জন স্নাইপার। অবশেষে উড়ে একটি হেলিকপ্টার।

জননিরাপত্তার জন্য গরুটি হুমকি হতে পারে এমন কথা ভেবেই বাছুরটিকে গুলি করে হত্যা করে পুলিশ।

সংবাদ মাধ্যমকে প্রত্যক্ষদর্শী ফটো সাংবাদিক জন মিলার্ড বলেছেন, প্রায় ২০টি পুলিশের গাড়ি, প্রচুর সংখ্যক সশস্ত্র পুলিশ এবং একটি হেলিকপ্টার চক্কর দিচ্ছিল মাথার ওপর।

তিনি বলেন, আমি তাকিয়ে দেখলাম পুলিশের অবস্থান হতে মাত্র ৪শ’ গজ দূরে একটি গরু দাঁড়িয়ে ঘাস চিবুচ্ছিল। যখন গরুটির ছবি তুলতে ক্যামেরাটি তাক করলাম ঠিক তখনই পড়ে গেল।

একটি গরুর বাছুরকে এভাবে গুলি করে মারার ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন স্থানীয়রা। টমি লুক বার্নস নামে এক কৃষক বলেছেন, গরুটিকে রাস্তার এক পাশে সরিয়ে আনা কোনো কঠিন কাজ ছিল না। সরিয়ে এনে একটি পশুবাহী গাড়িতে উঠিয়ে দিলেই ঝামেলা ফতে। সামান্য একটা গরুকে কিভাবে সামলাতে হয় সেই জ্ঞানটুকুও ছিল না পুলিশের।

উল্লেখ্য, ‘বেসি’র এই করুণ পরিণতি স্থানীয়দের এতোটাই আহত করেছে যে, ‘বেসি’র স্মরণে তারা মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের আয়োজন করে। এরই মধ্যে ফেসবুকে ‘বেসি’কে নেয়া খোলা পেজে ৭ হাজার লাইকও পড়েছে!



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই