মেইন ম্যেনু

খারাপ স্মৃতি তাড়া করে? ভয় নেই, বিজ্ঞান বলছে মুছে দেবে

আরতি মুখোপাধ্যায়ের সেই গানটা গাইতে গাইতে অনেকেই অনুভব করেছি যে, সত্যি যদি খারাপ স্মৃতিগুলোর একটা ব্যবস্থা করা যেত! যদি মাথা থেকে দূর করা যেত যাবতীয় অপমান, তামাম প্রিয়জনবিচ্ছেদ, সব ব্যর্থতার ঘটনা!

আর চিন্তা নেই, সম্প্রতি বিজ্ঞানীরাই জানালেন, অবাঞ্ছিত স্মৃতিদের মুছে দেওয়া যেতে পারে মস্তিষ্ক থেকে। আপাতত মানুষের মস্তিষ্ক থেকে অবাঞ্ছিত স্মৃতি তাড়ানোতে বেশ কিছু নৈতিক বাধা রয়েছে। ভবিষ্যতের জন্যই তাঁরা এই গবেষণা করেছেন।

বস্টনে আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর দি অ্যাডভান্সমেন্ট অফ সায়েন্স-এর বার্ষিক সভায় টরোন্টো বিশ্ববিধ্যালয়ের বিজ্ঞানী শিনা জোসেলিন জানিয়েছেন, তাঁর গবেষকদল নিরলস গবেষণা থেকে আবিষ্কার করেছে, মস্তিষ্কের কোন কোষে কী ধরনের স্মৃতি সংরক্ষিত থাকে। সেই সূত্র ধরে খারাপ স্মৃতিগুলিকে চিহ্নিত করা সহজ হবে। ওই কোষগুলির কার্যক্ষমতাকে যদি কমিয়ে দেওয়া যায়, তবে খারাপ স্মৃতিগুলোও ক্রমে মুছে যাবে মগজের হার্ডডিস্ক থেকে।

ইতিমধ্যে ইঁদুরের উপরে পরীক্ষা করে তাঁরা সফল হয়েছেন বলে জানান শিনা। ইঁদুরের মগজ থেকে ভয়ের স্মৃতি মুছে দিতে সমর্থ হয়েছেন তিনি ও তাঁর সহকারীরা। এই ভাবে হয়তো খুব শিগগির মানুষের উপরে প্রয়োগ করা যাবে তাঁদের উদ্ভাবিত প্রক্রিয়া। যুদ্ধ, স্বজনবিয়োগ, ব্যর্থতা আর অপমানের কোনও অর্থই থাকবে না সভ্যতায়।






মন্তব্য চালু নেই