মেইন ম্যেনু

ক্রাইস্টচার্চে করুনারত্নের প্রতিরোধ

ইনিংস পরাজয়ের মুখোমুখিই দাঁড়িয়েছিল সফরকারী শ্রীলংকা। তবে সে লজ্জায় আর পড়তে হয়নি এঞ্জেলো ম্যাথিউজদের। দিমুথ করুনারত্নের করুনায় সত্যি সত্যি বড় বাঁচা বেঁচে গেছে লংকানরা। যদিও এখনও ম্যাচ বাঁচানোর স্বপ্ন তাদের সুদুর পরাহত।
ক্রাইস্টচার্চে পার হয়েছে মাত্র তৃতীয় দিন। তাতেই জয় দেখতে শুরু করেছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে করা তাদের ৪৪১ রানের বিশাল পাহাড় টপকাতে এখনও ১০রান প্রয়োজন লংকানদের। হাতে আছে ৫ উইকেট।
ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের তৃতীয় দিনটি ছিল শুধুই করুনারত্নের। স্বাগতিক বোলারদের তোপের মুখে একা বুক চিতিয়ে লড়াই করে গেলেন তিনি। ৪৮৩ মিনিট উইকেটে টিকে থেকে ৩৬৩ বল মোকাবেলা করে ১৫২ রান করে আউট হন লংকান ওপেনার। যেখানে ছিল ১৭টি চারের মার। তবে একটিও ছক্কার মার নেই। ১৪ টেস্টের ক্যারিয়ারে অবশ্য এটাই তার প্রথম সেঞ্চুরি। চারটি রয়েছে হাফ সেঞ্চুরি। যার মধ্যে সর্বোচ্চ ছিল ৮৫ রান।
উইকেটে টিকে আছেন এখনও অধিনায়ক ম্যাথিউজ। তাতে হয়তো ৪৪১ রান টপকে যেতে পারবে শ্রীলংকা। কিন্তু কতটুকুই বা আর লক্ষ্য ছুঁড়ে দিতে পারবে নিউজিল্যান্ডের সামনে!
প্রথম ইনিংসে কেনে উইলিয়ামসনের ১৯২ রানের ওপর ভর করে ৪৪১ রানের বিশাল চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয় নিউজিল্যান্ড। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৩৮ রানেই অলআউট সফরকারীরা। ফলোঅনে পড়ে ব্যাট করতে নেমে আবারও বিপর্যয়। যদিও সেই বিপর্যয় একপাশ থেকে সামাল দিতে থাকেন ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে।
করুনারত্নের সঙ্গে উইকেটে এসে কিউই বোলারদের ভালোই প্রতিরোধ গড়তে থাকেন অধিনায়ক ম্যাথিউজ। ১৫২ রানে করুনারত্নে আউট হয়ে যান ট্রেন্ডট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে। ১০৮ বলে ৫৩ রানে অপরাজিত রয়েছেন ম্যাথিউজের। তার সঙ্গে ৫ রানে উইকেটে টিকে রয়েছেন থারিন্ডু কুশাল।






মন্তব্য চালু নেই