মেইন ম্যেনু

কাঙ্ক্ষিত নারী: প্লাস্টিক সার্জারির আগে ও পরে

জনপ্রিয়তার স্বাদ পাওয়া আগে তারা দর্শকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে অনেক কাঠখড়ি পুড়িয়েছেন। অনেকে মুখে নির্দয়ভাবে চালিয়েছেন ছুরি-কাচি। কিশোর বয়সের চেহারা সঙ্গে পরিণত বয়সের চেহারায় অনেকে মিল খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। এই সংস্কৃতিটা হলিউডেই বেশি। এমন কয়েকজন বিখ্যাত সেলিব্রেটিকে দেখুন:

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি
কিশোর অ্যাঞ্জেলিনা দেখলে কিন্তু মোটেই কাঙ্ক্ষিত মনে হবে না। পড়াশুনাতেও ততো ভালো ছিলেন না। কিন্তু আজ হলিউডের মতো জায়গায় তার অবস্থানটা কতো উঁচুতে! যৌবনে যেমন বানিয়েছেন শরীর তেমনি মুখটাও চোখা করতে চালিয়েছেন ছুরি-কাচি।

১

জেনিভার অ্যানিস্টোন
‘ফ্রেন্ডস’ টিভি সিরিজের কল্যাণে স্টার হওয়ার আগে শারীরিক গঠনের দিক থেকে বেশ আকর্ষণীয় হলেও এটাতে সন্তুষ্ট ছিলেন তা তিনি। মুখটাতে আরো জেল্লা আনতে ছুরি কাচি চালিয়েছেন। ম্যাটহাটনে বসবাসের সময় একজন সাধারণ কিশোরীই ছিল জেনিভার। তবে তার স্বপ্ন ছিল বড় অভিনেত্রী হওয়ার।

২

জোয়ে জেশানেল
সপ্তম গ্রেডে পড়ার সময়কার ছবির সাথে কিন্তু তার বর্তমান চেহারার মিল খুব কম। সেই ১৪ বছর বয়সী কিশোরী পরে ১০ পাউন্ড ওজন কমিয়েছেন। মুখেও করেছেন প্লাস্টিট সার্জারি। নিউগার্ল টিভি সিরিজের এ তারকা এখন কাঙ্ক্ষিত তরুণীদের একজন।

৩

জেনিভার গার্নার
সেই যে মোটা ফ্রেমের চশমা পরা মেয়েটি ছিল একেবারেই সাধারণ। এই মুখমণ্ডলে তিনি খুব একটা দৃষ্টি কাড়তে পারেননি। পরে মুখে যে অস্ত্রোপচার হয়েছে তেমনি চোখে লেখেছে কনট্যাক্ট লেন্স।

৪

ব্রাড পিট
এখন যেমন তেমনি কিশোর বয়সেই লেডিকিলার ছিলেন ব্র্যাড পিট। বিশ্বের সবচেয়ে কাঙ্ক্ষিত পুরুষের তকমাটা থাকলেও এর জন্য কিন্তু অন্যদের মতো ছুরি কাচির দরকার হয়নি।

৫

টেলর লুটনার
টুইলাইট এ তারকা কিশোরকালের স্বপ্ন থেকে এখন অনেক দূরে। ২০ তে এসে সে এতোই ব্যস্ত হয়ে পড়েছে যে পড়াশুনায় মন দেয়ার সময় নেই। সেই সময়কার লম্বাচুলো ছেলেটিতে এখন যেন চেনাই যায় না। বাম পাশের ছবিটি ২০০৮ সালে ক্যালিফোর্নিয়া হাইস্কুল প্রফিসিয়েন্সি টেস্টের সময় তোলা।

৭

কেট মস
দেখুনতো ছবিটা, বিশ্বাস হয়- এ-ই তাহলে কেট মস! কী ছিল আর কী হয়ে গেছে!! ২০ বছর বয়সে তোলা ছবি এটি। এই চেহারার তরুণীটি আজ সবচেয়ে বেশি আয় করা মডেল। ফোর্বস ম্যাগজিনের হিসাবে এটাই এখন কেট মস।

৮

চার্লিজ থেরন
কিশোর থেরনের চোখের সমস্যা ছিল ভয়াবহ। চশমা ছাড়া সামান্য দূরেও দেখতে পারতেন না। এ কারণেই ছেলেরা তাকে গুরুত্ব দিত না। তবে ১৯ বছর বয়সেই বদলে যান চার্লিজ থেরন। মিলানে মডেল হিসেবে কাজ করার শুরুতেই এই পরিবর্তনটা আনেন তিনি। ছবিতে পার্থক্যটা বুঝে নিন।

gaga {focus_keyword} কাঙ্ক্ষিত নারী: প্লাস্টিক সার্জারির আগে ও পরে gaga

চার্লিজ থেরন
কিশোর থেরনের চোখের সমস্যা ছিল ভয়াবহ। চশমা ছাড়া সামান্য দূরেও দেখতে পারতেন না। এ কারণেই ছেলেরা তাকে গুরুত্ব দিত না। তবে ১৯ বছর বয়সেই বদলে যান চার্লিজ থেরন। মিলানে মডেল হিসেবে কাজ করার শুরুতেই এই পরিবর্তনটা আনেন তিনি। ছবিতে পার্থক্যটা বুঝে নিন।

৯

লেডি গাগা
নব্বইয়ের দশকের স্টেফানি গার্মানোট্টাকে সবাই তার ফিগারের জন্য ব্যঙ্গ করতো। লেডি গাগা নামে যখন তার আবির্ভাব ঘটলো তখন ক্যামেরায় দেখা গেল অন্য স্টেফানিকে। তখনো অবশ্য ওজন নিয়ে বিপাকে ছিলেন তিনি। এখন সেটাও অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছেন।

১০

মেগান ফক্স
ফক্সই সম্ভবত একমাত্র ব্যতিক্রম। কিশোরী ফক্স যেমন হট, তরুণী ফক্স তার চেয়েও এগিয়ে। ট্রান্সফর্মার অভিনেত্রীর সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়নি এমন কেউ নেই। মাত্র ১৩ বছর বয়সে মেগান ফক্স মডেলিং শুরু করেন।

 






মন্তব্য চালু নেই