মেইন ম্যেনু

এবার যে কারণে বাদ দেয়া হয়েছে ধোনিকে

আইপিএল অধিনায়কত্ব থেকে বাদ দেয়া হয়েছে ধোনিকে। টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিদায় নিয়েছিলেন কোনো পূর্বাভাষ না দিয়েই। এই তো সেদিন সীমিত ওভারের ক্রিকেটের অধিনায়কত্বও ছেড়ে দিয়েছেন একেবারে হঠাৎ করেই। আগের দিন খবর আসে আইপিএলে রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্টসের নেতৃত্ব থেকেও সরে দাঁড়িয়েছেন। পরে জানা গেল মালিকপক্ষের ইচ্ছায় তাঁকে সরে দাঁড়াতে হয়েছে।

ভারতের সফলতম অধিনায়ক বলা হয় তাঁকে। আইপিএলের ক্ষেত্রেও তাই। এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগের শুরু থেকেই অধিনায়কত্ব করেছেন বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া দল চেন্নাই সুপার কিংসের। দলটিকে দুবার শিরোপা জিতিয়েছেন, একবার জিতিয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ টি-টোয়েন্টির শিরোপা।

ক্রিকেট-দুর্নীতির নানা কেলেঙ্কারিতে নিজেদের জড়িয়ে চেন্নাই আইপিএল থেকে নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে ঘর বদলাতে হয় তাঁকে। গত মৌসুমে খেলেছিলেন নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি রাইজিং পুনে সুপার জায়ান্টসের হয়ে। তবে নিচের দিক থেকে দ্বিতীয় হয়েছে তাঁর দল। নতুন মৌসুমে দলকে ঢেলে সাজাতে চায় মালিকপক্ষ। নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছে অস্ট্রেলিযার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথকে।

ধোনিকে যে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, সেটি পুনের মালিক কলকাতার শিল্পপতি সঞ্জীব গোয়েনকারের কথাতেই স্পষ্ট, ‘সরাসরিই বলি, গত মৌসুমে ভালো দল নিয়েও প্রত্যাশিত ফল পাইনি। আমরা চাই তুলনামূলক তরুণ কোনো খেলোয়াড় দলকে নেতৃত্ব দিক এবং নতুন মৌসুমের আগে দলকে নতুন করে গড়ে তুলবে।’ এসব কারণ বিবেচনায় দলের অধিনায়কত্ব থেকে বাদ দেয়া হয়েছে ধোনিতে।

পুনেতে স্মিথের অধীনে একজন সাধারণ ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতে হবে ধোনিকে। নিজের ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে নির্ভর করতে হবে কোচ স্টিভেন ফ্লেমিংয়ের সিদ্ধান্তের ওপর। ভারতের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক হিসেবেই যাকে বিবেচনা করা হয়, সেই ধোনি এমন পরিস্থিতি কীভাবে সামাল দেন সেটি ভবিষ্যৎই জানিয়ে দেবে।






মন্তব্য চালু নেই