মেইন ম্যেনু

এইচটি ইমাম বিএনপির লোক

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম বিএনপির লোক দাবি করে বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেসসচিব মারুফ কামাল খান সোহেল বলেছেন, ‘এইচটি ইমাম আমাদের লোক। তার গায়ে হাত দেবেন না। তার গায়ে হাত দিলে পরিনতি ভালো হবে না।’

তিনি বলেন, ‘সব জায়গাতে আমাদের লোক আছে। কখন, কোথায় সত্য প্রকাশ হয়ে যাবে বলতে পারবেন না। সত্য প্রকাশের জন্য আরো এইচটি ইমাম রয়েছে। তারাও একে একে সত্য ফাঁস করে দেবে।’

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত বিএনপির সিনিয়ার ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে মারুফ কামাল খান বলেন, ‘বিএনপিকে ভাঙার ষড়যন্ত্র করছেন। বিএনপি থেকে দু-চার জন নেতাকে ভাগিয়ে নেয়ার চেষ্টাও করছেন। কিন্তু কোনো লাভ হবে না।’

তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী কিংবা ক্ষমতার জন্য আন্দোলন করছেন না। দেশের মানুষের মুক্তি ও গণতন্ত্র রক্ষার জন্য আন্দোলন করছেন। কারণ দেশে কোনো শান্তি নেই। দেশের মানুষের নিরাপত্তা নেই।’

সোহেল বলেন, ‘তারেক রহমান সুস্থ হয়ে দেশে ফিরবেন। তিনি এ সরকারের ষড়যন্ত্রকে ভয় পান না। এর চেয়েও কঠিন সময়ে তিনি দেশে ছিলেন। তিনি দেশে ফিরে দেশের গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা রক্ষায় কাজ করবেন।’

সকলকে পদ-পদবীর মোহ ত্যাগ করে তিনি বলেন, ‘পদ-পদবীর প্রতিযোগিতা দলে থাকবে। শুধু জেল খাটলেই ত্যাগ হবে না। দেশের স্বার্থে, জাতির স্বার্থে, সংগঠনের স্বার্থে পদ-পদবীর মোহ ত্যাগ করতে হবে।’

এইচটি ইমামকে উপদেষ্টা করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি সন্দেহ পোষণ করে আলোচনা সভায় বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, ‘এইচটি ইমাম কী করে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হলেন? যিনি খন্দকার মোশতাক সরকারের শপথ বাক্য পাঠ করিয়েছিলেন। তাকে উপদেষ্টা করা রহস্যজনক।’

তিনি বলেন, ‘আসলেই আমাদের সন্দেহ হয় প্রধানমন্ত্রী তার পিতার হত্যার বিচার চান কি-না!’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেন, ‘তারেক রহমান ষড়যন্ত্রের শিকার। রাজপথে নেমে এই সরকারকে ক্ষমতাচ্যূত করতে হবে। এই সরকারের বিরুদ্ধে একমাত্র পথ হলো রাজপথে জনগণের আন্দোলন গড়ে তোলা।’

তারেক রহমানের সঙ্গে রফিকুল ইসলাম মিয়ার কথা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সুস্থ হলেই তিনি দেশে ফিরে আসবেন, আপনাদের সাথে যোগ দেবেন। তারেক রহমান বিদেশে থাকলেও তিনি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য গবেষণা করছেন।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল বারী বাবু, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রেজাউর রহমান রিপন, ইয়াসিন আলী, এমএ মান্নান, ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান প্রমুখ। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু।






মন্তব্য চালু নেই