মেইন ম্যেনু

‘ইন্ডাস্ট্রির শতভাগ আমার কাঁধে, এটা অহংকার নয় বাস্তবতা’

এক যুগেরও বেশি সময় ধরে বাংলা চলচ্চিত্রকে একাই আগলে রেখেছেন দেশের একমাত্র সুপারস্টার অভিনেতা শাকিব খান। সম্প্রতি তাকে ইস্যু করে দেশজুড়ে যে তোলপাড়, সেগুলোকে তার জায়গা থেকে টেনে নামানো ও তার বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র হিসেবেই দেখছেন এই নায়ক। নিজের সংকট মুহূর্তে তাই বাংলা চলচ্চিত্রে তার অবদান যে ঠুনকো নয় সে কথাই যেনো বারবার বলতে চাইলেন।

সম্প্রতি শাকিব-অপু ইস্যুর পর বিভিন্ন জায়গায় সাক্ষাৎকার দেন শাকিব খান। একটি শীর্ষস্থানীয় দৈনিকে সাক্ষাৎকার দেয়ার সময় বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নিয়ে বলতে গিয়ে এফডিসি কেন্দ্রিক নির্মাতা ও কলাকুশলীদের ‘বেকার’ বলে অভিহিত করেন। এমন হেয় করে বক্তব্য দেয়ার পর বাংলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি থেকে তাকে নিষিদ্ধ করে পরিচালক সমিতিসহ আরো বারোটি সংগঠন।

এমন রূঢ় সিদ্ধান্তের পর কিছুটা নমনীয় হন শাকিব খান। নির্মাতাদের বিভিন্ন সংগঠনসহ সবার কাছে ক্ষমা চেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। সেই সাথে বাংলা চলচ্চিত্রে নিজের প্রভাবের কথাও বলতে ভোলেননি এই তারকা।

নিষিদ্ধের খড়গ কাটিয়ে সম্প্রতি গণমাধ্যমে কথা বলেন শাকিব খান। সেখানে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকে বাংলা চলচ্চিত্রের বিরুদ্ধেই ষড়যন্ত্র বলে মন্তব্য করেন। কারণ তার নামটি এই দেশের চলচ্চিত্রের রন্ধ্রে রন্ধ্রে মিশে আছে।

তাকে ষড়যন্ত্র করে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে এই দেশের চলচ্চিত্রই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে দাবি করে শাকিব খান বলেন, এই ইন্ডাস্ট্রির প্রায় শতভাগ আমার কাঁধে। আমার ছবি ছাড়া ডিস্ট্রিবিউটররা ছবি নিতে চান না। এটা অহংকার না, বাস্তবতা। সেখানে আমাকে ডিস্টার্ব করলেই তো সবার কাজ হাসিল হয়ে যায়। আমাদের এই ইন্ডাস্ট্রির যেটুকু সম্ভাবনা ছিল সেটিও নিভে যাবে।

উল্লেখ্য, পরিচালকদের ‘বেকার’ বলার দায়ে সম্প্রতি নিষিদ্ধ হয়েছিলেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। তাকে নিষিদ্ধ করার বিষয়টি নিয়ে গেল সপ্তাহে শিল্পী, পরিচালক ও প্রযোজকদের মধ্যে বিরাজ করছিলো প্রবল উত্তেজনা। কিন্তু সমস্ত ভুল বোঝাবুঝির পর শাকিবের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয় চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি। চিত্রনায়ক আলমগীর ও সোহেল রানার উপস্থিতিতে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির কক্ষে গিয়ে ক্ষমা চেয়েছিলেন শাকিব খান।






মন্তব্য চালু নেই