মেইন ম্যেনু

আ.লীগ নেতা-মন্ত্রীদের মুখে ধুতরার বিষ

আওয়ামী লীগ নেতা ও মন্ত্রীরা যেভাবে কথা বলছেন তা দেখে মনে হয় জন্মের সময় মায়েরা তাদের মুখে মধুর বদলে ধুতরার বিষ ঢেলে দিয়েছেন।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রহুল কবির রিজভি রোববার দুপুরে নয়াপল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, ‘তাদের বাক্যবান থেকে বিরোধীদলের নেতা-নেত্রীরা শুধু নন, দেশের বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ যথা- আইনজীবী, শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, মুক্তিযুদ্ধের উপ-অধিনায়ক কেউই বাদ যাচ্ছেন না।’

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি তারা দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. পিয়াস করিমের মৃত্যুর পর যে আচরণ করেছেন তাতে গোটা জাতি লজ্জিত ও অপমানিত হয়েছে। উচ্ছেদ, উৎখাত ও দখলের ধারাবাহিকতায় তারা এখন আমাদের মহান ভাষা আন্দোলনের স্মারকস্থান শহীদ মিনারকে ‘দলীয় কাচারি ঘরে’ পরিণত করতে চাচ্ছে।’

রিজভী বলেন, ‘ডা. পিয়াস করিমের মরদেহে নাগরিক শ্রদ্ধা নিবেদনে বাধা দিতে গিয়ে নোংরা খেলার মাধ্যমে সরকার দেশকে চিরস্থায়ী বিবাদের দিকে ঠেলে দিয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা ক্ষমতার ম্যাজিক কার্পেট পেতে বসে আছেন। সেখান থেকে তিনি নামতে পারছেন না। আর এ জন্যে দেশ সহিংসতা বিভাজনে ক্ষতবিক্ষত হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘শয়তানের আস্থা নিয়ে অবৈধ সরকার দেশ চালাচ্ছে। তাদের পতনের সঙ্গে সঙ্গে দেশে শান্তি ফিরে আসবে।’

যুবদলের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে গ্রেপ্তার শেষে রিমান্ডে নেয়ার কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘এটি ভোটারবিহীন সরকারের জিঘাংষার নমুনা।’ তিনি আলালসহ গ্রেপ্তার নেতাদের মুক্তি দাবি করেন।






মন্তব্য চালু নেই