মেইন ম্যেনু

‘আল্লাহর গজবে আ.লীগ পুড়ে ছাই হয়ে যাবে’

প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ্ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেছেন, ‘হাসিনা সরকারের অত্যাচারে দেশের এই অশান্তিতে আল্লাহর গজবে আওয়ামী লীগ পুড়ে ছাই হয়ে যাবে।’

বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে নাগরিক ফোরামের উদ্যোগে ‘২৮ অক্টোবরের লগি-বৈঠা তাণ্ডবের ৮ বছর গণতন্ত্র ও মানবাধিকার’ শীর্ষক নাগরিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শাহ্ মোয়াজ্জেম বলেন, লগি-বৈঠার ঘটনায় শেখ হাসিনার হুকুম ছিল। হাসিনাই প্রথম আসামি, তার বিচার আগে করা উচিত। মুসলমানদের হত্যা করে লাশের উপর নৃত্য করে এরাও কি মুসলমান? লগি-বৈঠার ঘটনা এক সময় বুমেরাং হতে পারে। আমরা তা আশা করি না। তবে দেশের জনগণ হাসিনাকে ছাড়বে কিনা তা আল্লাহ ভাল জানেন।’

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু এক দলীয় শাসন করায় হত্যার শিকার হয়েছিলেন। শেখ হাসিনা এখন একদলীয় শাসনতন্ত্র কায়েম করছেন। এর বিপরীতে কি হতে পারে দেশের জনগণই তা ভাল জানে।’

পুলিশ- র‌্যাব দিয়ে অর্থের বিনিময়ে কৌশলে বিএনপিকে ধ্বংস করার পরিকল্পনা করে কোনো লাভ নেই। ২০১৯ সাল পযর্ন্ত ক্ষমতায় থাকার পরিকল্পনা টিকবে না। আওয়ামী লীগের তথা হাসিনার বিচার করার জন্য জনগণ অপেক্ষায় আছে।’

শেখ হাসিনাকে হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, ‘বলেন খালেদা জিয়া আন্দোলনের ডাক দিলে দেশে রক্তের বন্যা বয়ে যাবে। দেশের মানুষ আন্দোলনের ডাকের অপেক্ষায় আছে। বেগম জিয়া জনগণের কথা ভেবে এখনো ধৈর্য্য ধরে আছেন। আর অপেক্ষা করা হবে না। আন্দোলনের মাধ্যমে এই অবৈধ্য সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত জনগণ ঘরে ফিরবে না।’

বিরোধী দলের প্রাক্তন চিপ হুইপ ও বিএনপির প্রচার সম্পাদক অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ফারুক বলেন, ‘কেন ২৮ অক্টোবরে এমন নৃশংসতা হলো? কেন লাশের উপর নৃত্য করা হলো? বেগম খালেদা জিয়া চেয়েছিলেন সুষ্ঠু নির্বাচন। এই নির্বাচন বানচাল করার জন্য ২৮ অক্টোবর এবং ১/১১ সৃষ্টি হয়েছিল। ফখরুদ্দিন-মইনুদ্দিনের মতো শেখ হাসিনারও অস্তিত্ব থাকবে না।’

সংগঠনের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহীল মাসুদের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শমসুজ্জামান দুদু, বাংলাদেশ ইসলামীক পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল মোবিন, অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা, এম জহির আলী, নাগরিক ফোরামের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট পারভেজ হোসেন প্রমুখ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই