মেইন ম্যেনু

আবারও লজ্জার হার স্পেনের

দুঃসময় যেন পিছু ছাড়ছে না স্পেন দলের। ইউরো বাছাইয়ে স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে হারের স্বাদ গ্রহণ করতে হল তাদের। ইউরো বাছাইয়ে গত আট বছররের মধ্যে এটাই স্পেনের প্রথম হার। শুক্রবার স্লোভাকিয়ার জিনিলার পদ দোবলন স্টেডিয়ামে স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে হেরেছে দেল বস্কের শিষ্যরা।
বিশ্বকাপে লজ্জাজনক হারে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছিল স্পেন। তবে ইউরো বাছাইয়ে প্রথম ম্যাচে জয়ে ফিরেছিল দেল বস্কের দল। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই ইউরো বাছাইয়ে দীর্ঘ সময় অপরাজিত থাকার রেকর্ড ভেঙে হারল অপেক্ষাকৃত দুর্বল দল স্লোভাকিয়ার কাছে।
ম্যাচে প্রথমে পিছিয়ে পড়েও দ্বিতীয়ার্ধের গোলে সমতায় ফেরে লা রোজারা। গোলে শট নিয়েছে বেশি স্পেনের খেলোয়াড়রাই। বারবার গোলের সুযোগ সৃষ্টি করেও এদিন ভাগ্য সহায় হয়নি তাদের। শেষ পর্যন্ত স্লোভাকিয়ার খেলেয়াড় মিরোস্লাভ টচের শেষ সময়ের গোলে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।
ম্যাচের ১৭ মিনিটে ফ্রি কিক থেকে গোল করে স্লোভাকিয়াকে এগিয়ে নেন মিডফিল্ডার জুরাজ কোচকা। ৩০ গজ দূর থেকে জুরাজের নেয়া শট সোজা স্পেন গোলরক্ষক ক্যাসিয়াসের বরাবর যায়। তবে ক্যাসিয়াস ভুল দিকে ঝাপিয়ে পড়ে গোল ঠেকাতে ব্যর্থ হন। তবে ক্যাসিয়াসের মতো কোন ভুল করেননি স্লোভাকিয়ার গোলরক্ষক মাতুস কোজাচিক। তিনি একে একে ইনিয়েস্তা, দিয়েগো কস্তা ওবাসকোয়েটসের নেয়া দুর্দান্ত সব শট আটকে দেন।
তবে কস্তা-ইনিয়েস্তারা ব্যর্থ হলেও বেঞ্চ থেকে খেলায় নেমে স্পেনকে সমতায় ফেরান আলকেসার। তৃতীয় বারের মতো স্পেনের হয়ে মাঠে নেমে এটি তার দ্বিতীয় গোল। ম্যাচের ৮২ মিনিটে জোরদি আলবার পাসে বল পেয়ে গোলটি করেন তিনি।
শেষ বাঁশি বাজার তিন মিনিট আগে ড্রয়ের দিকে এগিয়ে যেতে থাকা ম্যাচের গতিপথ আাবারও বদলে দেন স্লোভাকিয়ার মিরোস্লাভ টচ। সতীর্থ হামসিকের নিঁখুত পাসে বিপদজনক জায়গায় বল পেয়ে যান তিনি। আর সেই সুযোগ হাতছাড়া করেননি স্লোভাকিয়ান মিডফিল্ডার। ফলে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তার দল। আর এই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে পটয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রয়েছে স্লোভাকিয়া। আর ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দেল ব্স্ক বাহিনী।
অন্যান্য খেলার ফলাফল বেলারুশের বিপক্ষে ইউক্রেনের ২-০ ব্যবধানে জয়ী, লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে ৩-২ ব্যবধানের জয় পেয়েছে মেসিডোনিয়া।






মন্তব্য চালু নেই