মেইন ম্যেনু

আনানসি যেভাবে মাকড়সা হলো

আফ্রিকার এক রাজার ছিল পৃথিবীর সবচে সুন্দর ভেড়া। তো একদিন ভেড়াটি আনানসির ক্ষেতের মধ্যে ঢুকে গেলো। সে দিগবিদিক জ্ঞানশূন্য হয়ে ভেড়াটি লক্ষ্য করে সজোরে একটি ঢিল ছুড়ে মারল। ঢিল গিয়ে লাগল ভেড়ার চোখে আর সঙ্গে সঙ্গে সেটি মারা গেল। এবার আনানসি সম্বিৎ ফিরে পেলো। এতো রাজার প্রিয় ভেড়া, রাজা তো তাকে ছাড়বে না। সুতরাং এই বিপদ থেকে বাঁচার উপায় খুঁজতে লাগল সে। পাশেই একটি বাদাম গাছের নিচে বসে আকাশ পাতাল ভাবতে লাগল। এমন সময় একটি বাদাম তার মাথার উপর পড়ল আর আনন্দে লাফিয়ে উঠল আনানসি। আরেকটু বসে সে ভালো করে ফন্দি আঁটল।

তারপর উঠে প্রথমে মৃত ভেড়াটিকে একটি দড়ি দিয়ে ওই বাদাম গাছে ঝুলিয়ে রাখল। এরপর জঙ্গলের ভেতর এক মাকড়সার কাছে গেলো। তাকে বলল, আমি বাদাম গাছ দেখেছি, সারা গাছ বাদামে ছেয়ে গেছে। মাকড়সাটি তার কথা বিশ্বাস করে লাফাতে লাফাতে ওই গাছে চলে গেলো। এবার আনানসি গেল রাজার কাছে, গিয়ে বলল, রাজা আপনার প্রিয় ভেড়াকে একটি মাকড়সা মেরে ফেলেছে। এই বলে সে কান্নার ভান করল। সে বলল, এই বাদাম গাছে মাকড়সাটি তার জালের পাশে ভেড়াটি ঝুলিয়ে রেখেছে।

রাজা আনানসির কথায় খালি বিশ্বাসই করল না প্রিয় ভেড়াকে হত্যাকারীর সন্ধান দেওয়ার জন্য পুরস্কার ঘোষণা করল। আর ওই খুনি মাকড়সার মৃত্যুদণ্ডের নির্দেশ দিল। আনানসি খুব খুশি হয়ে আবার মাকড়সাটির কাছে গিয়ে বলল, তোমার ওপর রাজার তো মহা ক্ষ্যাপা। রাজার লোকেরা তোমাকে মেরে ফেলবে। এর পর সারা শহর চিৎকার করে জানিয়ে দিল, এক মাকড়সা রাজার প্রিয় ভেড়াটিকে হত্যা করেছে। কিন্তু এই কথা শুনে মাকড়সা তো ধন্দে পড়ে গেল। লোকটা কী সব বলছে! সে কেন রাজার ভেড়া মারতে যাবে। আনানসি তাকে পরামর্শ দিল, যাও রাজার কাছে গিয়ে ক্ষমা ভিক্ষা কর। হয়ত তিনি তোমার মৃত্যুদণ্ড মওকুফ করবেন।

ওই দিন রাজা দুপুরের খাবার খেতে প্রাসাদের অন্দর মহলে গেলেন। স্ত্রীকে সবকিছু খুলে বললেন তিনি। রাণী এই ঘটনা শুনে হেসেই গড়াগড়ি যাওয়ার জোগাড়। তিনি বললেন, ‘তোমার কি মাথা খারপ হয়েছে। একটা ছোট্ট মাকড়সা কি করে এতো বড় ভেড়াকে মেরে আবার গাছে ঝুলিয়ে রাখল? এটা আনানসি তোমার সঙ্গে প্রতারণা করেছে। দেখ, সেই-ই তোমার ভেড়াকে মেরে ফেলেছে।’

এবার রাজার বোধদয় হলো। তিনি আনানসির ওপর প্রচণ্ড রকম রেগে গেলেন। সভাসদদের নির্দেশ দিলেন, এই মুহূর্তে তাকে আমার সামনে হাজির কর। সঙ্গে সঙ্গে রাজার লোকেরা আনানসিকে ধরতে তার বাড়ি গেল। কিন্তু আনানসি ভাবল, রাজা তাকে পুরস্কার দেওয়ার জন্য লোক পাঠিয়েছে। তাই সে খুব অহংকারের সঙ্গে বুক উঁচিয়ে দম্ভের সঙ্গে প্রসাদের ভেতর রাজদরবারে ঢুকল। রাজা তো তার দম্ভ দেখে আরও রেগেমেগে আগুন। কিন্তু আনানসি এসব ভ্রুক্ষেপই করল না। সে বরং রাজার কাছে পুরস্কার চাইল। এই কথা শুনে অগ্নিমূর্তি রাজা আনানসিকে কষে এক লাথি দিলেন। তাকে কেটে টুকরা টুকরা করে ফেললেন। তবে আনানসি কিন্তু মরেনি। সেই দিন থেকে সে মাকড়সা হয়ে গেল।






মন্তব্য চালু নেই