মেইন ম্যেনু

অদৃশ্য টেলিফোনে আদালতের রায় হয় : গয়েশ্বর

‘যে আদালতে অদৃশ্য টেলিফোনে রায় হয়, সে আদালতে আইনজীবীদের আইনের বই পড়া নিস্ফল’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট এর উদ্যোগে “বিচারপতি অপসারণ প্রক্রিয়া এবং বিচার বিভাগ” শীর্ষক গোলটেবিল সেমিনারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

গয়েশ্বর বলেন, ‘আদালতে যেসব বিচারক ও আইনজীবীদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে তার ৮০ ভাগ দলীয় কর্মী। সরকার বিচারকদের ওপর আর বিশ্বাস রাখতে পারছে না বলেই বিচার বিভাগ নিজেদের আওতায় নিতে চাচ্ছে।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘বিচার বিভাগকে নিজেদের আওয়তায় এনে আইনের শিরচ্ছেদ করার চেষ্টা করছে সরকার। এর ফলে গুম-খুন আরও বেড়ে যাবে। সাধারণ মানুষ তাদের সর্বশেষ আশ্রয় হারাবে।’

তিনি সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন, ‘যা করছেন একটু ভেবে চিন্তে করুন, নইলে এ কাজ আপনাদের জন্য আগামী দিনের মৃত্যুকূপ হবে।’

বিচারকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘তারা এই ঘটনার পর চুপ করে রয়েছে। কারণ তারা সবাই দলীয় লোক। তারা তামাশার সরকারকে সমর্থন করে জনগণকে তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে।’

সংগঠনের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদত হোসেন সেলিমের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবীর খোকন, বিএনপি নেতা আবু নাসের মো. রহমাতুল্লাহ, সংগঠনের সভাপতি আজিজুল হাই সোহাগ, যুগ্ম সম্পাদক মাহমুদুল হক প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই