মেইন ম্যেনু

মডেলিংও করতে পারবে না

৬ মাস নিষিদ্ধ সাকিব

দেশের সব ধরণের ক্রিকেট থেকে আগামী ছয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে।
বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ চন্দ্রিকা হাথুরাসিংহের সঙ্গে তর্কে জড়ানো ও গ্যালারিতে গিয়ে দর্শক পেটানোর দায়ে সাকিব আল হাসানকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে ছয় মাস নিষিদ্ধ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেটে স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
সভা শেষে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হক পাপন।

তিনি জানান, বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাকিব আল হাসান আগামী ৬ মাস দেশে কোনো ধরণের ক্রিকেটে অংশ নিতে পারবেন না। এছাড়া আগামী বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশের বাইরে কোনো টুর্নামেন্ট খেলতে পারবেন না।
কারণ এই সময়ের মধ্যে বিসিবি দেশসেরা এই ক্রিকেটারকে ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ দেবে না। যার অর্থ দাঁড়াচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) কিংবা ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) মতো টুর্নামেন্টেও খেলতে পারবেন না সাকিব।
এছাড়া বিসিবির সভার এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ অর্থাৎ, আগামী দেড় বছর সাকিব আল হাসান দেশের বাইরে কোনো টুর্নামেন্ট খেলতে পারবেন না। কারণ এই সময়ের মধ্যে বিসিবি দেশসেরা এই ক্রিকেটারকে ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ দেবে না। যার অর্থ দাঁড়াচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) কিংবা ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (সিপিএল) মতো টুর্নামেন্টেও খেলতে পারবেন না সাকিব।

বিসিবি সভাপতি বলেন, সাকিব আমাদের রোল মডেল। আমরা তাকে কোনো শাস্তি দিতে চাইনি। কিন্তু তার বিরুদ্ধে যে রিপোর্ট পাওয়া গেছে, তা ভয়াবহ। এ কারণেই তাকে শাস্তি দেয়া হলো।
সাকিব যদি আবারও এ ধরণের কোনো অপরাধ করে, তবে তাকে আজীবন নিষিদ্ধ করা হতে পারে বলেও জানান পাপন।
তিনি আরও বলেন, সাকিব শুধু নিজেই অপরাধ করছে না পুরো টিম নষ্ট করছে। টিমের ক্ষতি হচ্ছে। তার কারণেই টিমের ছেলেরা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অনেকেই কথা শুনছে না।
তিনি জানান, আগামী ছয় মাস সাকিব বিসিবিতে এসে একা একা অনুশীলন করতে পারবে।

## সাকিবের মডেলিংয়েও বাধা :

ছয় মাস দেশের হয়ে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিষিদ্ধের পাশাপাশি আগামী দেড় বছর বিদেশি কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবেন না সাকিব আল হাসান। ক্রিকেট ছাড়াও বিনোদন জগতের বিজ্ঞাপনে মডেলিংয়েও সাকিবের বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কোনো অনুমতি ছাড়া তিনি আর বিজ্ঞাপনে নাম লেখাতে পারবেন না।

সোমবার বিসিবির বোর্ড সভা শেষে প্রতিষ্ঠানের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ ঘোষণা দেন।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘ক্রিকেট ছাড়াও সাকিব আল হাসান বিনোদন জগতের বিজ্ঞাপনে মডেলিং করতে পারবে না বিসিবি অনুমতি ছাড়া। শুধু সাকিব নয় জাতীয় দলের কোনো ক্রিকেটারই বিসিবির অনুমতি ছাড়া বিজ্ঞাপনের মডেলিং করতে পারবেন না।’
সুতরাং বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের এখন থেকে নতুন কোনো বিজ্ঞাপনে কাজ করতে হলে আগেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অনুমতি নিতে হবে।

বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ক্রিকেটের মতো বিজ্ঞাপনচিত্রে নিজেকে স্থান করে নিয়েছেন। আর তাই সাকিবের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পণ্যের প্রচারে সুবিধা নিতে বেশি আগ্রহী। বলতে গেলে খুব অল্প সময়ে সাকিব বাংলাদেশের বিজ্ঞাপনের মডেলিং জগতের দামি তারকা। তবে সাকিবের করা আগের বিজ্ঞাপন প্রচারণায় কোনো বাধা দেবে না বিসিবি।






মন্তব্য চালু নেই