মেইন ম্যেনু

৫ জানুয়ারি ভোট দিয়েছে এমন কাউকে পাইনি

গণফোরামের সভাপতি ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, আমার দুর্ভাগ্য যে, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ভোট দিয়েছে এমন কাউকে এখন পর্যন্ত খুঁজে পাইনি।

বুধবার সুপ্রিম কোর্ট বার ভবনের ২ নম্বর হলে গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতি ‘৭২’র সংবিধান ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ড. কামাল হোসেন উপস্থিত আইনজীবীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে আমি ভোট দেইনি, আপনারাও ভোট দেননি। তাই এটা নিয়ে কোন বিতর্ক নেই যে, এ দেশে গণতন্ত্র আছে। দেশে সকল প্রতিনিধি নির্বাচিত হবে জনগণের মাধ্যমে এমনটাই বিধান রয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচন ছাড়া প্রতিনিধি নির্বাচিত হতে পারেন না। অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে যখন প্রতিনিধি নির্বাচিত হবে, তখনই জনগণের ক্ষমতা প্রতিষ্ঠিত হবে।

ড. কামাল হোসেন আরো বলেন, ভোটারবিহীন নির্বাচন ১৯৮৬ সালে প্রথম শুরু হয়েছে। শাসক দল দাবি করতে পারে যে, ভোটারবিহীন নির্বাচন ঠিক আছে। কিন্তু এটা গণতন্ত্র নয়।

বিচার বিভাগের বিষয়ে কামাল হোসেন বলেন, বিচারপতি নিয়োগ হতে হবে স্বচ্ছতা ও মেধার ভিত্তিতে। এ ক্ষেত্রে সিনিয়র আইনজীবী ও অন্য বিচারপতিদের মতামত নেওয়া দরকার বলেও মনে করেন দেশের এ বিশিষ্ট আইনজীবী।

গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির সভাপতি সুব্রত চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। তাই তারা মাসদার হোসেন মামলায় হাইকোর্টের রায়কে আপিল বিভাগে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন।একই সঙ্গে বিচারপতি ও বিচারকদের যোগ্যতা ও মেধার প্রশ্নেও সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই