মেইন ম্যেনু

‘১৪ দল শুধু সংবাদ সম্মেলন নির্ভর জোটে পরিণত হয়েছে’

‘১৪ দল শুধু সংবাদ সম্মেলন নির্ভর জোটে পরিণত হয়েছে। এভাবে জোট চলতে পারে না। ১৪ দলকে আরো শক্তিশালী করতে হবে ‘

শনিবার বিকেলে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ওয়ার্কার্স পার্টি আয়োজিত সমাবেশে বক্তরা এসব কথা বলেন।

মৌলবাদী-সাম্রাজ্যবাদী ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ এবং জনজীবনের সংকট মোচন ও অসাম্প্রদায়িক-গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ রক্ষার ২০ দফা দাবিতে এ সমাবেশের আযোজন করা হয়।

‘ওয়ার্কার্স পার্টির ৭ জন সংসদ সদস্য, একজন মন্ত্রী আছেন। আমরা বর্তমানে ক্ষমতায় নেই, ক্ষমতার সঙ্গে আছি, সমর্থনে আছি।ক্ষমতায় থেকে আমরা লড়াই করে যাচ্ছি। আমরা যদি সরকারে সমর্থনে না থাকতাম, তাহলে জামায়াত শিবির ক্ষমতায় থাকত।’

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেননের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য কমরেড আনিসুর রহমান মল্লিক, বিমল বিশ্বাস, হাফিজুল ইসলাম, নুরুল হাসান, শফিউদ্দিন আহমেদ, নুর আহমদ বকুল, মাহমুদুল হাসান মানিক, হাজেরা সুলতানা এমপি ও কামরূল আহসান প্রমুখ।

সমাবেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটনমন্ত্রী কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি বলেন, ‘আমরা লড়াই করছি শ্রমিক ও মেহনতি মানুষের জন্য। সমাজের পরিবর্তনের জন্য। যুদ্ধ করছি মৌলবাদ ও সম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে।’

‘আমরা প্রকৃত অর্থেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মানুষকে সম্পৃক্ত করে লড়াই করছি। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠা করতে হলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের মৌলিক মানবাধিকারের নিশ্চয়তা দিতে হবে। সে লক্ষ্যে আমরা একদিকে সরকারের সঙ্গে থেকে মন্ত্রিসভা ও সংসদে লড়াই করছি’, বলেন রাশেদ খান মেনন।

তিনি আরো বলেন, ‘ওয়ার্কার্স পার্টির ভাই-বোনরা গ্রাম-গঞ্জের মানুষের কাছে ছুটে যান। বিকল্প শক্তির ভীত গড়ুন। মৌলবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নিজেদের শরিক করুন। সাম্প্রদায়িকতা যদি দূর করতে না পারেন তা হলে অগ্রযাত্রা ব্যহত হবে। বতর্মানে দেশ এগিয়ে চলছে, এগিয়ে যাবে। কিন্তু সন্ত্রাস, দুর্নীতি করতে না পারলে তা সম্ভব হবে না।’ এ জন্য বামপন্থীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান রাশেদ খান মেনন।

সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেন, ‘১৪ দলীয় জোটে আছি বলেই, ওয়ার্কার্স পার্টি আলাদা কর্মসূচি থাকবে না, এটা হয় না। এটা জেটের কর্মসূচি নয়, ওয়ার্কার্স পার্টি আলাদা কর্মসূচি।’






মন্তব্য চালু নেই