মেইন ম্যেনু

হ্যাপির বাসায় অন্যের উপস্থিতি জানতে ডিএনএ পরীক্ষা

জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেলের বিরুদ্ধে দায়ের করা ধর্ষণ মামলায় অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির বাসায় অন্য কারো উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত হতে জব্ধ করা আলামতের ডিএনএ পরীক্ষার অনুমতি দিয়েছে ঢাকার সিএমএম আদালত।

বুধবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান ওই অনুমতি দেন।

এ বিষয়ে অনুমতি চেয়ে গতকাল বিকেলে সংশ্লিষ্ট আদালতে একটি আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর থানা পুলিশের এসআই মাসুদ পারভেজ।

গত ১৩ ডিসেম্বর নবাগত অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপী ধর্ষণের অভিযোগে রাজধানীর মিরপুর থানায় জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেলের বিরুদ্ধে এই মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, বিয়ের কথা বলে রুবেল অভিনেত্রী হ্যাপীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। তারা দীর্ঘদিন স্বামী-স্ত্রীর মতো বসবাস করতেন বলে মিডিয়ার কাছে দাবি করেছেন হ্যাপী। কিন্তু যখনই বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকেন তখনই সে (রুবেল) টালবাহানা করতে থাকে। পরবর্তীতে রুবেল হ্যাপীর গায়েও হাত তোলে বলে মামলায় অভিযোগ করেন হ্যাপী।

মামলার পর রাত সাড়ে ৭টার দিকে হ্যাপীকে পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে নেয়া হয় এবং পরদিন ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেন্সিক বিভাগে তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই