মেইন ম্যেনু

হবু শ্বশুরের ‘চুমু কাণ্ডে’ বিয়ে ভাঙলেন কনে

অর্ধেক বিয়ে হয়ে গিয়েছে, বাকি কেবল সাত পাকে বাঁধা৷ মঞ্চের একপাশে বসে কনে, তার পাশে আদরের বোন৷ শ্বশুরবাড়ির লোকজন এসে নববধূকে আশীর্বাদ করে যাচ্ছেন৷ একই ভাবে হবু শ্বশুর মশাইও সেখানে এলেন৷ আর্শীবাদ করার পরেই হবু পুত্রবধুর কপালে উষ্ণ চুম্বন দেবেন তিনি৷ পাশাপাশি তার বোনকেও একটি চুমু দিলেন৷ ব্যস আর যায় কোথায়, রাগে অগ্নিশর্মা হয়ে বিয়ের আসর থেকে উঠে গেলেন কনে, সাফ জানিয়েদিলেন এ বিয়ে তিনি করছেন না৷ উত্তরপ্রদেশের কানপুরের ফাররুখাবাদের ঘটনা৷

সংবাদমাধ্যমের খবর, নাগলা খাইরবান্দা গ্রামের বাসিন্দা পরমেশ্বরী দয়ালের মেয়ে রুচির সঙ্গে ইতাহের বাসিন্দা বাবুরামের ছেলে রাজেশের বিয়ে ঠিক হয়৷ বিয়ের প্রায় শেষ মুহুর্তে অতিরিক্ত উচ্ছাসে নববধূ রুচি ও তার বোন অনিতাকে চুমু খান বাবুরাম৷ এই কারণে বিয়েতে অস্বীকার করে রুচি৷ এমনকি বরযাত্রীদেরও ফিরে যেতে বলেন তিনি৷ বাবুরাম তার কাছে ক্ষমতা চাইলেও মন গলেনি তার৷ ঘটনা যায় পুলিশের কানেও৷

এই বিষয়ে রুচির ভাই ব্রিজেশ জানিয়েছেন, বিয়ে বাবদ প্রায় ২৭ হাজার টাকা ফেরৎ দেওয়ার আশ্বাস দিলে বরযাত্রীরা ফিরে যেতে রাজি হয়৷ অন্যদিকে, কোতয়ালি থানার আধিকারিক আরপি যাদব জানিয়েছেন, বরের বাড়ি থেকে কনে কে দেওয়া সমস্ত অর্থ ও উপহার ফেরত দেওয়া হয় ও উভয় পক্ষের সমঝোতায় সমস্যার সমাধান হয়৷ছবি:প্রতীকী






মন্তব্য চালু নেই