মেইন ম্যেনু

হঠাৎ প্রচন্ড যানজটে রাজধানীবাসী

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাজধানীর সড়কগুলোতে প্রচণ্ড যানজট লক্ষ করা গেছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা।
যাত্রী, চালক ও ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণকক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আজ সকাল থেকেই রাজধানীর সড়কগুলোতে যানবাহনের চাপ ছিল কিছুটা বেশি। সকাল সাড়ে সাতটার পর তা তীব্র আকার ধারণ করে।

সকাল আটটার পর ভিআইপি সড়কগুলো যানজটে প্রায় থমকে যায়। পরে এই যানজট ভিআইপি সড়কসংলগ্ন অন্যান্য সড়কেও ছড়িয়ে পড়ে।
ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণকক্ষের তথ্যমতে, রাজধানীর ভিআইপি সড়ক ছাড়াও মগবাজার, এলিফ্যান্ট রোড, সায়েন্স ল্যাবরেটরি, ধানমন্ডি, গ্রিন রোড, মিরপুর রোডসহ বিভিন্ন সড়কে সকালে প্রচণ্ড যানজটের সৃষ্টি হয়।

বেসরকারি ব্যাংক কর্মকর্তা মইনুল হক মিরপুর ১২ নম্বর থেকে সকাল পৌনে আটটায় মতিঝিলের উদ্দেশে রওনা দেন। কারওয়ান বাজার আসতে তাঁর প্রায় দেড় ঘণ্টা লেগে যায়। এর মধ্যে বিজয় সরণি সিগনালেই কেটে যায় আধঘণ্টা।

সকাল সোয়া আটটায় মোহাম্মদপুর থেকে বাসে ওঠেন শাকিল আহমেদ। তিনি বলেন, দিলকুশা যেতে দুই ঘণ্টা লেগে গেছে।
তীব্র যানজটের কারণে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানবাহনে যাত্রীদের অসহায়ের মতো বসে থাকতে দেখা গেছে। অনেকে ধৈর্যহারা হয়ে গণপরিবহন থেকে নেমে গন্তব্যের উদ্দেশে হাঁটতে শুরু করেন।

সকাল ১০টানাগাদ যানজট কিছুটা কমে আসে। পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের সহকারী কমিশনার (ট্রাফিক) আবদুল আওয়াল বলেন, আজ সকাল থেকেই রাজধানীর সড়কগুলোতে যানবাহনের প্রচণ্ড চাপ। এই চাপ সামাল দিতে ট্রাফিক পুলিশকে হিমশিম খেতে হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই