মেইন ম্যেনু

সৌরবিদ্যুৎ’এ আলোকিত হচ্ছে মরক্কোর মসজিদ

মরক্কোর অন্তত ১৫ হাজার মসজিদে সৌরবিদ্যুৎ সুবিধা দেওয়ার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দেশটির সরকার। বলা হচ্ছে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই মসজিদগুলোতে নিজস্ব সোলার প্যানেলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সুবিধা দেয়া সম্ভব হবে।

সম্প্রতি মরক্কোর মারাক্কেশে বেশ কয়েকটি মসজিদকে এই সুবিধার আওতায় আনা হয়েছে। এরই মধ্যে অন্যতম মারাক্কেশের কুতুবিয়া মসজিদ৷ বাইরের কোনো জ্বালানী সংযোগ ছাড়া শুধুমাত্র সৌর বিদ্যুতে আলোকিত হয়েছে আল্লাহ’র ঘরটি। সেখানে যারাই এবাদতের জন্যে প্রবেশ করছেন তারাই অবাক হয়ে যাচ্ছেন। আর সূর্য্যের আলো থেকে পাওয়া বিদ্যুৎকে আল্লাহ’র কুদরত হিসেবেই অভিহিত করছেন তারা।
মরক্কোর অন্যতম এই পুরনো মসজিদেই শুধু নয়, আশপাশের মসজিদগুলোকেও সৌরবিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে দেশটির ধর্ম মন্ত্রণালয়। জার্মান প্রযুক্তি সংস্থা জিআইজেড এর সহায়তায় মরক্কোর অন্তত ১৫ হাজার মসজিদে সৌর প্যানেল বসানো হবে। যার মাধ্যমে আলোকিত হবে এসব মসজিদ।

ধর্ম মন্ত্রণালয় এরই মধ্যে মসজিদগুলোতে সৌরপ্যানেল নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আগামী ৩ বছরের মধ্যে অন্তত ৬শ’টি মসজিদে ফটোভোল্টাইক (পিভি) প্যানেল স্থাপন করা হবে। পর্যায়ক্রমে এই সুবিধা প্রতিটি মসজিদেই সম্প্রসারিত করা হবে।

শুধু মসজিদেই নয়, নবায়নযোগ্য জ্বালানী উৎপাদনের মাধ্যমে দেশের বিদ্যুতের চাহিদা পূরণের পরিকল্পনা রয়েছে মরক্কোর। সম্পূর্ণ না হলেও আগামী ১৫ বছরের মধ্যে দেশের অর্ধেক বিদ্যুৎ এভাবেই উৎপাদনে আগ্রহী সরকার।

এখন পর্যন্ত মরক্কোর চাহিদার প্রায় ৯৫ ভাগ বিদ্যুৎ আসে অন্য দেশ থেকে। তবে সৌরবিদ্যুতের মত নবায়নযোগ্য জ্বালানী দেশেই উৎপাদন করতে পারলে পরিস্থিতি পাল্টে যাবে বলেই সরকারের বিশ্বাস।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই