মেইন ম্যেনু

সিরিজ জিততে বাংলাদেশের চাই ৩১২

শ্রীলঙ্কার জন্য এটি বাঁচামরার ম্যাচ। হারলেই সিরিজ হারাবে স্বাগতিকরা আর জিতলে পহেলা এপ্রিলের ম্যাচটি হবে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ। তবে পরের ম্যাচের দিকে তাকাতে চায় না বাংলাদেশ। এই ম্যাচ জিতে সিরিজটাই বগলদাবা করে নিতে চান মাশরাফি। সিরিজ জয়ের জন্য বাংলাদেশকে করতে হবে ৩১২ রান। এর আগে টস জিতে কুশল মেন্ডিস ১০২, উপুল থারাঙ্গা ৬৫ রানের সুবাদে ৩১১ রানে অলআউট হয়েছে শ্রীলঙ্কা।

প্রথম ম্যাচ হারার পর ব্যাট হাতে আজ দারুণভাবেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে শ্রীলঙ্কা। তবে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমে শুরুটা ভালোই করে বাংলাদেশ। বিপজ্জনক হয়ে ওঠার আগেই দানুশকা গুনাতিলকেকে ফেরান মাশরাফি বিন মুর্তজা। বাংলাদেশ অধিনায়কের কাটার বুঝতে না পেরেই ব্যাট চালান গুনাতিলকে। অনেকটা দৌড়ে দারুণ এক ক্যাচ ধরেন উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিম। ১১ বলে ৯ রান করেন গুনাতিলকে।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে কুশল মেন্ডিস ও অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গার ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় স্বাগতিকরা। এই জুটিতে আসে ১১১ রান। জুটিটা যখন বিপজ্জনকভাবে এগোচ্ছিল, ঠিক তখনই দারুণ এক থ্রো করে থারাঙ্গাকে রান আউটের ফাঁড়ায় ফেলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৭৬ বলে ৬৫ রান করে ফিরে যান থারাঙ্গা।

এরপর তৃতীয় উইকেটে ৮৩ রানের জুটি গড়ে আবার বাংলাদেশের বোলারদের ভোগান মেন্ডিস ও দিনেশ চান্দিমাল। ৩৭তম ওভারে এই জুটি ভেঙে কিছুটা স্বস্তি ফেরান মুস্তাফিজ। ২৪ রান করেন চান্দিমাল।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম শতক করে দলকে বড় সংগ্রহের পথে নিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন কুশল মেন্ডিস। তবে শতক পূর্ণ করার পরই তাঁকে ফিরিয়ে দেন তাসকিন আহমেদ। এরপর গুনাবর্ধনের ৩৯ ও সিরিবর্ধনের ৩০ রানে ভর করে ৩১১ রানের ভালো সংগ্রহ দাঁড় করায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে হ্যাটট্রিকসহ চার উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ। এ ছাড়া মাশরাফি, মিরাজ, তাসকিন ও মুস্তাফিজ একটি করে উইকেট নেন।






মন্তব্য চালু নেই