মেইন ম্যেনু

সাবিনার হ্যাটট্রিকে দিভেহির তৃতীয় জয়

গেল মার্চে প্রথম কোনো বাংলাদেশি নারী ফুটবলার হিসেবে মালদ্বীপ মাতিয়ে এসেছিলেন সাবিনা খাতুন। তার পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হয়ে এবার তিনিসহ আরো দুই বাংলাদেশি নারী ফুটবলারকে দলে ভিড়িয়েছে মালদ্বীপের দিভেহি সিফেইঙ্গি ক্লাব।

ফ্যাম ন্যাশনাল উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৫ এর প্রথম ম্যাচে সাবিনা ৭ গোল ও মিরোনা ১ গোল করেছিলেন। তাদের গোলে ভর করে ১০-০ গোলে জিতেছিল দিভেহি।

বুধবার টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে সান টিমের বিপক্ষে সাবিনা জোড়া গোল করেন। তার দল দিভেহি জয় পায় ২-১ ব্যবধানে। শনিবার টুর্নামন্টের তৃতীয় ম্যাচে সান টিমের বিপক্ষে দ্বিতীয় লেগে ৫-২ গোলে জয় পেয়েছে দিভেহি। এমন জয় সম্ভব হয়েছে বাংলাদেশের গোল মেশিন খ্যাত সাবিনা খাতুনের হ্যাটট্রিকের সুবাদে।

এ নিয়ে তিন ম্যাচে ১২ গোল করলেন সাবিনা। হ্যাটট্রিক করে ম্যাচ জেতালেও ম্যাচ সেরার পুরস্কার পাননি তিনি। অবশ্য এর আগের দুই ম্যাচে ম্যাচসেরা হয়েছিলেন তিনি।

এর আগে মালদ্বীপের উইমেন্স ফুটসাল ফিয়েস্তায় খেলতে গেল মার্চ মাসে দেশ ছেড়েছিলেন সাবিনা খাতুন। দেশ ছাড়ার আগে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন। হয়েছেনও। মাত্র ৬ ম্যাচে ৫ হ্যাটট্রিকসহ করেছিলেন ৩৭ গোল। ৫ ম্যাচেই হয়েছেন ম্যাচসেরা। মজার ব্যাপার হলো সাবিনার পর যিনি দ্বিতীয় সর্বাধিক গোল করেছিলেন তার গোলসংখ্যা ছিল মাত্র ১৩ টি।

এবারও টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে মালদ্বীপ গিয়েছেন। সে যাত্রায় তিন ম্যাচেই করেছেন ১২ গোল।

ফ্যাম ন্যাশনাল উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৫ তে চারটি দল অংশ নিয়েছে। ডাবল লিগ পদ্ধতিতে খেলা অনুষ্ঠিত হবে। পয়েন্টের ভিত্তিতে সেরা দুটি দল সেমিফাইনালে উঠবে। সেখান থেকে একটি দল ফাইনালে উঠবে। হেরে যাওয়া দলটি দ্বিতীয় সেমিফাইনালে লিগের তৃতীয় দলের মুখোমুখি হবে। এই ম্যাচের বিজয়ী দলও ফাইনালের টিকিট পাবে।






মন্তব্য চালু নেই