মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দর দিয়ে সকল পণ্য আমদানির সুযোগ প্রদানের দাবিতে কর্মসূচি ঘোষণা

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দর দিয়ে আমদানিযোগ্য সকল পণ্য আমদানির সুযোগ প্রদানসহ পাঁচ দফা দাবিতে দুইদিনের কর্মবিরতি কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ভোমরা স্থর বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশন। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে ভোমরা স্থল বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভোমরা স্থর বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অহিদুল ইসলাম বলেন, পূর্ণাঙ্গ বন্দর হওয়া সত্ত্বেও পিএসআই প্রথা ভোমরার ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। বর্তমানে ভোমরা বন্দর দিয়ে মাত্র ৩৫টি পণ্য আমদানির সুযোগ রয়েছে। যার অধিকাংশই শুল্কমুক্ত। এ ব্যাপারে বার বার কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো ও অবকাঠামোগত সুবিধা থাকলেও কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না। এ বন্দর দিয়ে সকল পণ্য আমদানির সুযোগ না দিয়ে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হচ্ছে।
সংবাদ সম্মেলনে ভোমরা স্থল বন্দর দিয়ে আমদানিযোগ্য সকল পণ্য আমদানির সুযোগ প্রদানসহ পাঁচ দফা দাবি জানানো হয়। এগুলো হলো, এনওসি ও অগ্রিম শুল্ক-করাদি পরিশোধ ব্যতিরেকে এলসি’র মাধ্যমে আমদানির সুযোগ প্রদান, আমদানি করা পণ্য বন্দর অভ্যন্তরে ৪৫ দিন সংরক্ষণের সুযোগ প্রদান, ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ ও বেনাপোল স্থলবন্দর পরিচালনা প্রবিধানমালা-২০০৭ কে অভিন্ন ও এক রেখে বেনাপোলের ন্যায় ভোমরার ক্ষেত্রেও অভিন্ন সিডিউল বাস্তবায়ন করা।
সংবাদ সম্মেলনে উল্লিখিত দাবি বাস্তবায়নে ২৮ ও ৩০ নভেম্বর প্রতিদিন দুই ঘণ্টা করে কর্মবিরতি পালনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। একই সাথে এর মধ্যে দাবি আদায় না হলে ১ ডিসেম্বর থেকে আমদানি পণ্য বন্দরের ওয়ার হাউজে না ঢোকানার ঘোষণা দেন ভোমরা স্থল বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ভোমরা স্থল বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি নিছার উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল মোমেম খান চৌধুরী সান্টু, কাজী নওশাদ দিলওয়ার রাজু, ইসরাইল গাজী, আমজাদ হোসেন প্রমূখ।
সংবাদ সম্মেলন শেষে নেতৃবৃন্দ উল্লিখিত দাবিতে সাতক্ষীরার জেলা প্রশসাকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি পেশ করেন।






মন্তব্য চালু নেই