মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরার খবর (০৮/১০/১৪)

সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল পুন:দখল:
সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের নেতৃত্ব পুনরায় ফিরে পেলেন মিনিবাস-বাস মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি ও জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু। বুধবার সকাল ৯টার দিকে বাস মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে তিনি টার্মিনালে অবস্থিত জেলা মিনিবাস-বাস মালিক সমিতির কার্যালয়ে অবস্থান নেন। তার উপস্থিতিতে জেলা মিনিবাস-বাস মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক ফিরোজ আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেনের লোকজন পালিয়ে যায়। তবে কোন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। সূত্র জানায়, গত চার মাস আগে জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবুকে হটিয়ে জেলা মিনিবাস-বাস মালিক সমিতির কার্যালয় দখল করে নেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু। এরপর আসাদুজ্জামান বাবুকে সভাপতি ও জাহাঙ্গীর হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা মিনিবাস-বাস মালিক সমিতির কমিটি গঠন করা হয়। তবে, গত দেড় মাস আগে কমিটির সদস্যদের অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে আসাদুজ্জামান বাবু সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক ফিরোজ আহমেদের নেতৃত্বে জেলা মিনিবাস-বাস মালিক সমিতি পরিচালিত হয়ে আসছিল। কিন্তু বুধবার সকালে সংখ্যাগরিষ্ঠ বাস মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে ফের সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল পুনরুদ্ধার করেন জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু।
বাস মালিক হান্নান, মঞ্জুরুল প্রমুখ জানান, গত চার মাস আগে ছাইফুল করিম সাবুকে হটিয়ে আসাদুজ্জামান বাবুর নেতৃত্বে যে অবৈধ কমিটি হয়, তাতে টার্মিনালে অনিময় দুর্নীতিতে ছেয়ে যায়। এতে বাস মালিক ও শ্রমিকরা অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে তারা একত্রিত হয়ে ছাইফুল করিম সাবুকে ফের টার্মিনালে ফিরিয়ে আনেন।
এ ব্যাপারে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু জানান, তিনি উক্ত কমিটি থেকে দেড় মাস আগে পদত্যাগ করেছেন। আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু জানান, অবৈধ কমিটি ভূয়া রেজিস্ট্রেশন করে তারা আমার কাছ থেকে বাস টার্মিনাল ছিনিয়ে নিয়েছিল। পরবর্তীতে বাস মালিকরা আমাকে পুনরায় টার্মিনালে বসিয়েছে।
এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রহমান জানান, টার্মিনালে বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুকুরের পানিতে ডুবে এক মহিলার মৃত্যু:
সাতক্ষীরা শহরের মুন্সিপাড়ায় পুকুরের পানিতে ডুবে খুশী খাতুন (৫২) নামের এক মহিলার মৃত্যু হয়েছ্।ে বুধবার বেলা এগারটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। বেলা একটার দিকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরী দল তার মরদেহ পুকুর থেকে উদ্ধার করে। তিনি ওই এলাকার মৃত ফয়জুর রহমানের মেয়ে।
স্থানীয়রা জানান,খুশী খাতুন অবিবাহিতা এবং তিনি বাবার বাড়ীতে থাকতেন। বুধবার বেলা এগারটার দিকে তিনি পাশের একটি পুকুরে গোসল করতে যান। এরপর থেকে তার কোন খোঁজ না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা পুকুরে তল্লাশী চালান। এক পর্যায়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরী দল তার মরদেহ পুকুর থেকে উদ্ধার করে। সদর থানার ওসি গোলাম রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই