মেইন ম্যেনু

সাজার ভয়ে পাগলের প্রলাপ বকছেন তারেক : স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার আসামি তারেক রহমান সাজার ভয়ে পাগলের প্রলাপ বকছেন। তিনি জানেন বাংলার মানুষ তাকে ক্ষমা করবেনা। তাই কাপুরুষের মত দেশের বাইরে থেকে মিথ্যা বোমা ফাটিয়ে আলোচনায় থাকতে চান।

তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আপনি দেশে ফিরে দু:খ প্রকাশ করুন। দেশের মানুষের কাছে ক্ষমা চান। আপনার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা মোকদ্দমা মোকাবেলা করুন।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়(জবি) মিলনায়তনে বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্যে করে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালের আগে আর কোন নির্বাচন নয়। জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে আপনাকে নির্বাচনে আসতে হবে।

ততকালীন জগন্নাথ কলেজের ছাত্র বর্তমান স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, শত বাধা প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আবাসন সংকটের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইতিমধ্যে তিনটি পুরান হল দখলে এসেছে। এছাড়া নতুন জমি ক্রয়ের প্রক্রিয়া চলছে।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা-৬ আসনের এমপি কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ছাত্রলীগের অনুমতি ছাড়া খালেদা জিয়া বাংলাদেশের কোন জায়গায় সমাবেশ করতে পারবেনা। বঙ্গবন্ধুকে যারা কুটক্তি করে তারো শুধু কটুক্তিই করেনি আরেকটি ষড়যন্ত্রের পূর্বাভাস দিয়েছে। শক্ত হাতে তাদের মোকাবেলা করতে হবে।

জবি ভিসি অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন. কোন মৌলবাদীকে আপন ভাবা যাবেনা। মৌলবাদীরা বহুদিন ধরেই উপ-মহাদেশে হিন্দু-মুসলমান বিভাজন করে রেখেছে। একাত্তরে তারা নৃসংসতা করেছিল। এখনো ততপর রয়েছে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ বলেন, জাতির পিতাকে কটাক্ষ করলে ছাত্রলীগ তাকে ছাড় দিবেনা। গ্রেনেড হামলা ও মানি লন্ডারিং এর আসামি তারেক রহমান বিদেশে বসে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। কুটনৈতিক ততপরতায় তারেক রহমানকে দেশে এনে বিচারের কাঠগড়ায় উঠানোর জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন জানান তিনি।

ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, ভূঁয়া ডিগ্রীধারি তুহিন মালিক লন্ডনে বসে ইতিহাস বিকৃতি করছে। তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগ আনা হবে।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদেও মধ্যে বক্তব্য রাখেন জবির আওয়ামী পন্থি শিক্ষক সংগঠন নীল দলের সাধারন সম্পাদক ড. নূর মোহাম্মাদ, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক গোলাম সরোয়ার কবির প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই