মেইন ম্যেনু

সর্বোচ্চ সাজা চায় রাষ্ট্রপক্ষ

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় অভিযুক্ত জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর সর্বোচ্চ সাজা চেয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ। অপরদিকে তাকে সম্পূর্ণ নির্দোষ দাবি করে তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম বলেছেন, ‘তাকে সাজা দিলে সেটি হবে ইতিহাসের জন্য কলঙ্কজনক।’

মঙ্গলবার ট্রাইব্যুনাল নিজামীর মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে প্রতিক্রিয়ায় তারা এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোখলেসুর রহমান বাদল সাংবাদিকদের বলেন, ‘দীর্ঘ প্রতীক্ষা শেষে জামায়াত নেতা মতিউর রহমান নিজামীর রায় আগামীকাল ঘোষণা করা হবে। আমরা এ রায়ে সর্বোচ্চ সাজা কামনা করছি।’

এসময় তার সঙ্গে রাষ্ট্রপক্ষের অন্য আইনজীবীরাও উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে তাজুল ইসলাম বলেন, ‘নিজামীর বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি প্রসিকিউশন। নিজামী রাজনীতি না করলে তার বিরুদ্ধে এরকম মামলা হতো না। তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা ডাহা মিথ্যা। আগামীকাল ট্রাইব্যুনাল রায়ের জন্য দিন ধার্য করেছেন। এ রায়ে নিজামী নির্দোষ হয়ে বেরিয়ে আসবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘নিজামীর বিরুদ্ধে ১৬ নম্বর অভিযোগ বেলিজিয়াম থেকে পাঠানো। এ অভিযোগের ভিত্তিতে রাষ্ট্রপক্ষ তার সাজা আশা করছে। কিন্তু তা কোনো মতেই প্রমাণ হবে না।’

‘সাক্ষ্যপ্রমাণ প্রসিকিউশন আনতে পারেনি, এজন্য কি নিজামীর শাস্তি হবে না’ সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাব তাজুল ইসলাম বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে তো কোনো অভিযোগই নেই, প্রসিকিউশন আনবে কিভাবে। সুতরাং একজন নিরপরাধ মানুষকে কোনো মতেই সাজা দেয়া যায় না। সাজা দিলে সেটি হবে ইতিহাসের জন্য কলঙ্কজনক। অতএব আমরা আশা করছি, আগামীকালের রায়ে নিজামী বেকসুর খালাস পাবেন।’

উল্লেখ্য, মতিউর রহমান নিজামীর মামলায় রায়ের জন্য আগামীকাল বুধবার দিন ধার্য করেছে ট্রাইব্যুনাল।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-১ মঙ্গলবার এ দিন ধার্য করেন।






মন্তব্য চালু নেই