মেইন ম্যেনু

সরকারের দুর্নীতির টাকা সুইস ব্যাংকে : রফিকুল ইসলাম মিয়া

‘সরকারের দুর্নীতির টাকা সুইস ব্যাংকে রাখা হয়েছে’ মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেছেন, ‘যে টাকা পাচার করা হয়েছে, অনতিবিলম্বে সেই টাকা ফেরত আনতে হবে এবং দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি দিতে হবে।’

রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী নাগরিক দল আয়োজিত ‘রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ১৯ দফা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে হবে’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

সংসদে চিফহুইপের কথার সমালোচনা করে রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেন, ‘কালো টাকা সাদা করার নীতি অনৈতিক, বেআইনি। কারণ কালো টাকা আয় করা হয়েছে বেআইনিভাবে। তবে যদি কালো টাকা সাদা করতে হয় তাহলে ১০% ট্যাক্স দিতে হবে।’

৫ জানুয়ারি নির্বাচন প্রসঙ্গে এই আইনজীবী বলেন, ‘ভারতের কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকার কারণে আওয়ামী লীগ নির্বাচন করতে সাহস পেয়েছে। তারা সমর্থন না করলে আওয়ামী লীগ নির্বাচন করে ক্ষমতায় আসতে পারতো না।’

‘সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য সংলাপ চায় না’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

‘নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের উপনির্বাচন প্রমাণ করে দিয়েছে এই সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়’ বলেও দাবি করেন প্রবীণ এই নেতা।

শেখ হাসিনার তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় সম্পর্কে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘জয় রাজনীতি বোঝে না। রাজনীতি করতে সে দেশে আসে না। সে শুধু আসে দেশের টাকা বিদেশে নিয়ে যেতে।’

শেখ হাসিনাকে চ্যালেঞ্জ করে তিনি বলেন, ‘আপনি যেখান থেকেই নির্বাচন করেন সেখানেই হেরে যাবেন। এই ভয়েই আপনি নির্বাচন দিচ্ছেন না।’

সংগঠনের সভাপতি শাহাজাদা মো. ওমর ফারুক পীর সাহেবের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের রহমতউল্লাহ, ডেমরা থানা বিএনপির সভাপতি আলহাজ নবী উল্লাহ নবী, সাবেক ডেপুটি জেনারেল অ্যাডভোকেট মনির হোসেন প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই