মেইন ম্যেনু

শুধু ব্যবসা করে পয়সা কামালেই হবে না : প্রধানমন্ত্রী

পোশাকশিল্পের সঙ্গে জড়িতদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, শুধু ব্যবসা করে পয়সা কামালেই হবে না, নিজেদেরও কিছু বিনিয়োগ করতে হবে। বিজেএমইএ আয়োজিত ঢাকা অ্যাপারেল সামিট ২০১৭–এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। এবারের সম্মেলনের স্লোগান ‘টুগেদার ফর অ্যা বেটার টুমরো’।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা শুধু রপ্তানিই করব না, আমাদের দেশের মানুষের যেন ক্রয়ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়, দেশের বাজার যেন সম্প্রসারণ হয়, সেই লক্ষ্যে আমাদের অর্থনৈতিক নীতিমালা গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। এজন্য বাজেটও প্রায় ৫ গুণ বাড়ানো হয়েছে।’ স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে ৫০ বিলিয়ন আয়ের লক্ষ্যমাত্রার চ্যালেজ্ঞ মোকাবেলায় সরকার পাশে থাকবে বলে নিশ্চয়তা দেন তিনি।

যানজটের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আশুলিয়ায় যাদের পোশাক কারখানা আছে, তাদের আমি বলেছিলাম, আমরা অনুমতি দিচ্ছি, আপনারা রাস্তা বানান। ঢাকা-আশুলিয়া মহাসড়কে আপনারা এলিভেটেড রাস্তা করে নিতে পারেন, যেটা দিয়ে শুধু মালিকরা বা যারা সেখানে যাতায়াত করেন তারা যাতায়াত করবেন। কিন্তু কেউ আর সেই উদ্যোগ নেননি।…আমরা সুযোগ করে দেবো। কিন্তু তার সদ্ব্যবহার করার দায়িত্ব আপনাদের।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের রপ্তানি আয়ের ৮০ শতাংশই পোশাক খাত থেকে আসে। প্রত্যক্ষভাবে প্রায় ৪০ লাখ শ্রমিকের কর্মসংস্থান এই খাত থেকেই হচ্ছে। আর পরোক্ষভাবে ৪ কোটিরও বেশি মানুষ পোশাকশিল্পের ওপর নির্ভরশীল।

পোশাক শিল্প দেশের রপ্তানীতে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। বিশ্বে রপ্তানী বাজার কীভাবে সম্প্রসারণ করা যায়, নির্দিষ্ট কিছু দেশের বাজারে সীমাবদ্ধ না থেকে নতুন নতুন বাজার কীভাবে পাওয়া যায় সেদিকে খেয়াল রাখার কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী। কোন দেশে কোন ধরণের পোশাকের চাহিদা বেশি, কোন মৌসুমে কোন ধরণের, কোন রঙের পোশাক বেশি চলে সেগুলো নিয়ে ভাবতে হবে। রপ্তানী পণ্যে বৈচিত্র্য আনতে হবে। নতুন নতুন ক্ষেত্র ও আইটেম ভেবে বের করতে হবে। রপ্তানীকে বহুমুখী করতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই