মেইন ম্যেনু

লালমনিরহাটে রেলের তেল চুরি প্রতিবাদ করে নিরাপত্তাহীনতা ভুগছে কলেজ ছাত্র কামরুল

লালমনিরহাটের কাকিনা রেল স্টেশনে ট্রেনের তেল চুরি ঘটনা’র প্রতিবাদকারী কারমাইকেল কলেজের ছাত্র কামরুল হাসান নিজের জীবনের নিরাপত্তাহীনতা ভুগছে।

শনিবার রাতে কামরুল হাসান তার ফেসবুক স্টাটাসে উল্লেখ করেন, ওই তেল চুরির ঘটনা’র তদন্ত কর্মকর্তা লালমনিরহাট রেলওয়ের এ টি এস ফুয়াত হোসাইন’র কথা মত হাতীবান্ধা রেল স্টেশনে লিখিত জবানবন্দি দিতে যাই। এ সময় ওই স্টোশন মাষ্টার শরৎ চন্দ্র আমার সাথে অসৈজন্য মূলক আচারণ করেন। এক পয়ার্য়ে আমাকে হুমকির সুরে বলেন, এসব করে কিছুই হবে না। ছাত্র মানুষ লেখাপড়া বাদ দিয়ে এসব করে নিজের বিপদ নিজেই ডেকে আনছো।

কামরুল হাসান তার স্টাটাসে নিজের জীবনের নিরাপত্তাহীনতার কথা উল্লেখ করেন এ ঘটনায় প্রশাসন ও সাংবাদিকদের সহযোগিতারসহ ওই স্টেশন মাষ্টার শরৎ চন্দ্রের বিচার দাবী করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৩ ডিসেম্বর রাতে জেলার কাকিনা রেল স্টেশনের ট্রেনের তেল চুরি সময় কামরুল হাসানসহ কয়েকজন প্রতিবাদ করেন। পরে তাদের মারধর করে রেলের কর্মচারীরা। এ ঘটনায় হাতীবান্ধা রেল স্টেশনের স্থানীয় জনতা ট্রেন আটক করে দিলে রেলওয়ের উদ্ধর্তন কৃতপ তেল চুরির ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩ জনকে সাময়িক বরখাস্তসহ ৪ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

এ ব্যাপারে লালমনিরহাট রেলওয়ের এ টি এস ও তদন্ত কমিটি’র প্রধান ফুয়াত হোসাইন জানান, তিনি পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তদন্ত প্রতিবেদন রেলওয়ের উদ্ধর্তন কৃতপ অবহিত করবেন।






মন্তব্য চালু নেই