মেইন ম্যেনু

রোনালদোর হ্যাটট্রিকে ছিটকে পড়ল বায়ার্ন

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে গতকাল রাতে মুখোমুখি হয় রিয়াল মাদ্রিদ ও বায়ার্ন মিউনিখ। কোয়ার্টার ফাইনালের ফিরতি লেগে রোনালদোর দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে ভর করে দুই লেগ মিলে বায়ার্নকে ৬-৩ ব্যবধানে হারিয়েছে রিয়াল। এ জয়ে বায়ার্নকে হটিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমির টিকিট নিশ্চিত করল লস ব্লাঙ্কোসরা।

বায়ার্নের মাঠে প্রথম লেগেই ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল রিয়াল। কোয়ার্টার ফাইনালে ফিরতি লেগে গতকাল রিয়ালের জয়টি ছিল ৪-২ ব্যবধানের। দুইবারই পিছিয়ে পড়া রিয়ালকে ফেরালেন রোনালদো। দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়েই জ্বলে ওঠে হ্যাটট্রিকের দেখা পেলেন পর্তুগিজ সুপারস্টার।

আর সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে এ হ্যাটট্রিকেই চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে প্রথম ফুটবলার হিসেবে শত গোলের মাইলফলকে পৌঁছলেন রোনালদো।

খেলার প্রথমার্ধ ছিল গোলশূণ্য। বিশ্রাম শেষে শুরু হয় গোলের খেলা। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে পুরো সান্তিয়াগো বার্নাব্যু স্তব্ধ করে দেন রবার্ট লেভানডফস্কি। পেনাল্টি থেকে গোল করে এগিয়ে দেন তিনি বায়ার্নকে। গোল হজমের পর যেন জ্বলে ওঠে রিয়াল। ম্যাচের ৭৬ মিনিটে দারুণ হেডে গোল করে রিয়ালকে সমতায় ফেরান রোনালদো। কিন্তু এর মিনিট পরই রামোসের আত্মঘাতি গোলে পিছিয়ে পড়ে রিয়াল। ঘরের মাঠে তখন ২-১ গোলে পিছিয়ে রিয়াল। দুই লেগ মিলিয়ে অ্যাওয়ে গোলসহ দু’দলের গোল ব্যবধান তখন ৩-৩ করে। ম্যাচের নির্ধারিত বাকি সময় পর্যন্ত আর গোল না হওয়ায় অতিরিক্ত সময়ে গড়ায় ম্যাচটি।

অতিরিক্ত সময়েই আসল রূপ দেখালেন রোনালদো। ম্যাচের ১০৪ এবং ১০৯ মিনিটে দুটি গোল তুলে নিয়ে পেয়ে গেলেন হ্যাটট্রিকের দেখা। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে তখন উচ্ছ্বাসের ঢেউ। আর ১১২তম মিনিটে বায়ার্নের জালে শেষ গোলটি করে তাদের ম্যাচ থেকে আরও দূরে ছিটকে দেন রিয়াল ফুটবলার আলভারো মোরাতা। বাকি সময়ে আর গোল না হওয়ায় ৪-২ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রিয়াল। আর দুই লেগে মিলে ৬-৩ ব্যবধানে নিশ্চিত করে সেমির টিকিট।






মন্তব্য চালু নেই