মেইন ম্যেনু

রুমে ঢুকলেই চার্জ হতে থাকবে মোবাইল! (দেখুন ভিডিওতে)

মোবাইল ফোন বা অন্যান্য চার্জ লাগে এমনসব যন্ত্রের জন্যে আর বাড়িতে রাখতে হবে না চার্জার। অন্তত বর্তমান গবেষণা যদি পুরোপুরি সফল হয় তবে এখন থেকে আপনার বাড়িই পরিণত হতে পারে চার্জারে।

অর্থাৎ যেমনটি কল্পনা করা হচ্ছে সেটা যদি বাস্তবায়ন সম্ভব হয় তবে আপনার যেকোনো ডিভাইস বাড়িতে পৌঁছলেই নিজ থেকে চার্জ হতে থাকবে। সেজন্যে কোনো চার্জারের সঙ্গে যুক্ত হতে হবে না। এমনকি রুমের নির্দিষ্ট কোনো স্থানেও রাখতে হবে না। রুমের যেখানেই থাকুক না কেন আপনার চার্জ প্রয়োজন হয় এমন ডিভাইস, সেটা নিজ থেকেই চার্জ হতে থাকবে।

আর এমন অভূতপূর্ব গবেষণার পেছনের প্রতিষ্ঠানটি কিন্তু আপনার খুব চেনা। যদিও তার সঙ্গে আপনার সখ্যতা অন্য কারণে। বিখ্যাত সব কার্টুন নির্মাণে বা শিশুতোষ সিনেমা নির্মাণে দুনিয়াজোড়া খ্যাতি যার, সেই ‘ডিজনি’ এবার খুলেছে রিসার্চ সেন্টার। যার নাম ডিজনি রিসার্চ।

গবেষকরা এমন এক রুমের কথা চিন্তা করছেন যার ছাদ থেকে শুরু করে ফ্লোর এবং দেয়ালও হবে অ্যালুমিনিয়াম প্যানেলের। আর রুমের মাঝে থাকবে দু’ইঞ্চি ব্যাসের কপার পাইপ। এই পাইপ দিয়ে বিদ্যুৎ তরঙ্গ প্রতি সেকেন্ডে ১.৩ মিলিয়ন বার যাতায়াত করবে। আর বিদ্যুৎ ইলেকট্রনের এই যাতায়াতের ফলে রুমে একটি তাড়িত চৌম্বকীয় অবস্থান সৃষ্টি হবে। আর এই পাইপের মাঝে স্থাপন করা হবে একটি ক্যাপাসিটর, যা বিদ্যুৎ প্রবাহের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করবে।

যদিও এই ধরনের বিদ্যুৎ প্রবাহ সাধারণত মানুষের জন্য নিরাপদ হয় না, তবে গবেষকরা এটি প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন যে, এতে মানুষের কোনো ক্ষতি হবে না। অর্থাৎ আপনি আপনার মোবাইল নিয়ে রুমে ঢুকলে মোবাইল ঠিকই চার্জ হবে কিন্তু আপনি বিদ্যুৎ শক খাবেন না! এটা নিরাপদভাবে ১.৯ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করবে যা ৩২০ ইউএসবি চালিত যন্ত্র চার্জ করার জন্যে যথেষ্ট।

তাহলে ভবিষ্যতের চিত্র বদলে যেতে পারে এভাবে, এখন যেখানে লেখা হচ্ছে ওয়াই-ফাই জোন ভবিষ্যতে সেখানে লেখা হবে ‘চার্জ জোন’!

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন






মন্তব্য চালু নেই