মেইন ম্যেনু

রুবেলকে নিয়ে বিব্রত ক্রিকেটাররা

জাতীয় দলের পেসার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে উঠতি অভিনেত্রী হ্যাপির ধর্ষণ মামলার পর এবার তাদের ফোনালাপের অডিও’ও ফাঁস হয়ে গেছে। অডিওটি প্রকাশ করে দিয়েছেন চলচিত্র নায়িকা নাজনিন আক্তার হ্যাপি নিজেই। বুধবার থেকেই দেশের একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল রুবেল-হ্যাপির ফোনালাপ প্রচার করেছে।

অডিওতে রয়েছে রুবেল হ্যাপির ঘনিষ্ঠতার চাঞ্চল্যকর তথ্য। হ্যাপির মামলা করার পর থেকেই পর্দার আড়ালে রুবেল হোসেন। মাঝে একবার কোর্টে হাজির হয়ে শুধু জামিন নিয়েছেন। কিন্তু গত শনিবারের পর থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) আশপাশেও ঘেঁষছেন না তিনি। তার এই ঘটনায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবির কর্মকতা থেকে শুরু করে জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররা সবাই বিব্রত-লজ্জিত।

সর্বশেষ বুধবার রুবেল-হ্যাপির ফোনালাপ মিডিয়াতে ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা এখন সাংবাদিকদের সঙ্গেও কথা বলতে লজ্জাবোধ করছেন। বৃহস্পতিবার জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা থেকে শুরু করে তামিম ইকবাল এ বিষয়ে কথা বলতে বিব্রত বোধ করেন।

ক্রিকেটাররা মিডিয়ার সঙ্গে এ ইস্যুতে কিছু বলতে না চাইলেও দিনভর টক অব দ্য বিসিবি ছিল রুবেলের প্রেম কাহিনি। এ নিয়ে সারাদিনই হাসাহাসি হয়েছে বিসিবিতে, হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা।

এ ইস্যু নিয়ে জাতীয় দলের কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার সরাসরি কিছু না বললেও রুবেল-হ্যাপি দু’জনকেই অপরাধী মনে করছেন তারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জাতীয় দলের এক তারকা ক্রিকেটার বলেন, ‘রুবেল-হ্যাপি দু’জনকেই বিয়ে পড়িয়ে দেয়া উচিৎ। সেটা না হলে এদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে।’

শুধু তাই নয়, রুবেলের ঘটনার পর থেকে ক্রিকেটাররা এখন অপরিচিত মেয়েদের সঙ্গে কথা বলার বিষয়ে সতর্ক। পারতপক্ষে অপরিচিত কারও সঙ্গে কথাও বলাও কমিয়ে দিয়েছেন তারা। পাছে না আবার কোন ঝামেলায় জড়াতে হয়!

ক্রিকেটাররা বিসিবিতে আসতে শুরু করে দুপুরের দিকে। তার আগে থেকেই রুবেলের ফোনালাপ নিয়ে হাসাহাসি করতে দেখা গেছে বিসিবির কর্মকতাদের। এ সময় বিসিবি কর্মকর্তাদের মোবাইল ফোনে ইউটিউবে ভিডিও ডাউলোর্ড করে ফাঁস করা ফোনালাপ শুনতেও দেখা যায়।

এ বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকতা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘রুবেলের ইস্যুটা তার ব্যাক্তিগত স্পর্শকাতর বিষয়। আমরা এখনও তার বিষয়টি পর্যবেক্ষন করছি। আসলে বিসিবি থেকে সবসময়ই জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের কিছু শর্ত দেয়া থাকে। শর্তগুলো কেউ মানছে কেউ মানছে না। বিশেষ করে পাবলিক বিষয়গুলো। তাই রুবেলের বিষয়ে আগামী বোর্ড সভায় আলোচনা করা হবে।’






মন্তব্য চালু নেই