মেইন ম্যেনু

‘রায় কার্যকরে সুপ্রিম কোর্টের দিকে তাকিয়ে সরকার’

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের নেতা মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের রায় কার্যকরের বিষয়ে সরকার সুপ্রিম কোর্টের দিকে তাকিয়ে আছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান মন্ত্রী। এর আগে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও স্বরাষ্ট্র সচিব মোজাম্মেল হকের সঙ্গে অনির্ধারিত এক বৈঠক করেন আনিসুল হক। বৈঠকে অতিরিক্ত আইজিপি এ কে এম শহিদুল হকও উপস্থিত ছিলেন।

তবে অনির্ধারিত ওই বৈঠকে কামারুজ্জামানের দণ্ডাদেশের বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি বলে দাবি করেন আইনমন্ত্রী।

তিনি জানান, তাদের বৈঠকটি ছিল দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে। এছাড়া বৈঠকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং সেলে থাকা গুরুত্বপূর্ণ মামলা নিষ্পত্তি নিয়েও আলোচনা হয় বলে জানান মন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, গত ২ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ কামারুজ্জামানকে অভিযুক্ত করে ফাঁসির দণ্ডদেশ প্রদান করে। এর আগে গত বছরের ৯ মে কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন মানবতাবিরোধী অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। ট্রাইব্যুনালের এ রায়ের বিরুদ্ধে ওই বছরের ৬ জুন আপিল করেন কামারুজ্জামান।

কামারুজ্জামানের রায় কার্যকর নিয়ে সরকার ও আসামিপক্ষের মধ্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। আইনমন্ত্রী ও অ্যাটর্নি জেনারেল প্রথমে যেকোনো সময় কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকর হবে বলে জানালেও পরে তারা জানান, আপিল বিভাগের রায়ের কপি ট্রাইব্যুনালে গেলে তারা মৃত্যু পরোয়ানা পাঠাবে কারাকর্তৃপক্ষের কাছে। তবে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা দাবি করেন, তারা রায় রিভিউয়ের সুযোগ পাবেন। তাছাড়া আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের আগে ফাঁসি কার্যকরের কোনো সুযোগ নেই।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই