মেইন ম্যেনু

রাহুলকে ‘জলে ফেলে দিলেন’ সোনিয়া : সাঁতরে উঠতে হবে একা একাই

উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে মঙ্গলবারও দেখা গেল না কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধীকে। রায়বরেলিতে নির্বাচনী জনসভাতে রাহুল গাঁধীকে দেখা গেলেও, এলেন না সনিয়া।

কংগ্রেস সূত্রের খবর, এবারের প্রচারে আর দেখাও যাবে না কংগ্রেস সভানেত্রীকে। বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ। এখনও পর্যন্ত সনিয়া প্রচারে অংশ নেননি। পঞ্জাব, উত্তরাখণ্ড, মণিপুর বা গোয়ার নির্বাচনী প্রচারেও তিনি থাকেননি।

মূলতঃ শারীরিক অসুস্থতার জন্যই সনিয়া নিজেকে গৃহবন্দি করে রেখেছেন। ইতিমধ্যেই তাঁর দু’বার অস্ত্রোপচার হয়ে গেছে।

তবে এর মাধ্যমে সনিয়া তাঁর ছেলে রাহুলকে একপ্রকার ‘জলেই ফেলে দিয়েছেন’। ১১৯৮ সালে কংগ্রেস সভানেত্রী হওয়ার পর থেকে, তিনি কোনও নির্বাচনী প্রচার এই রকমভাবে এড়িয়ে যাননি। বরাবর তিনিই ছিলেন দলের কাণ্ডারি।

এবার কংগ্রেসের সহ-সভাপতি রাহুল গাঁধীর উপরেই দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব পড়েছে। উত্তরপ্রদেশে সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে জোট হোক বা পঞ্জাবে এনডিএ-র সঙ্গে নির্বাচনী লড়াই— সব ক্ষেত্রেই রাহুল একাই নেতৃত্ব দিয়েছেন।
এখন দেখার কীভাবে মাকে ছাড়া রাহুল একা ‘সাঁতরে জল থেকে ওঠেন’।






মন্তব্য চালু নেই