মেইন ম্যেনু

রাবির হলে ল্যাপটপ চুরি : শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদী কর্মসূচি

ইয়াজিম ইসলাম পলাশ, রাবি প্রতিনিধি: হল থেকে ল্যাপটপ, সাইকেলসহ প্রয়োজনীয় জিনিস-পত্র চুরির ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বুধবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা রাবির উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিনের দফতরে হলের সার্বিক নিরাপত্তার দাবি জানিয়ে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

শের-ই-বাংলা হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মাহফুজ মুন্নার সাঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, শহীদ হবিবুর রহমান হলের শিক্ষার্থী মাসুদুর রহমান সোহেল, মাদার বখ্শ হলের শিক্ষার্থী মইনুল ইসলাম, শহীদ শামসুজ্জোহা হলের শিক্ষার্থী মোমিনুল ইসলাম সোহাগ, মতিহার হলের শিক্ষার্থী নাদিম মাহমুদ, শের-ই-বাংলা হলের শিক্ষার্থী আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

এসময় শিক্ষার্থীরা বলেন, হল থেকে নিয়মিত ল্যাপটপ চুরির ঘটনা আমাদেরকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। দৈনিক সানশাইনের প্রকাশিত খবর থেকে আমরা জেনেছি গত এক সপ্তাহে ৯টি ল্যাপটপ চুরি হয়েছে। রাবির বেশিরভাগ শিক্ষার্থী মধ্যবিত্ত পরিবারের। লেখাপড়ার প্রয়োজনে অনেক কষ্টে পরিবার থেকে ল্যাপটপ কিনে দেয়া হয়। তাই অনাকাঙ্খিতভাবে ল্যাপটপ চুরি হলে শুধুমাত্র ভুক্তভুগিই কষ্টটি অনুভব করতে পারেন।

তারা আরো বলেন, কক্ষে তালা মেরে যাওয়ার পরও দিন-দুপুরে তালা খুলে সবকটি চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ দায় হল প্রশাসন কিছুতেই এড়াতে পারে না। হল থেকে শুধু চুরিই নয়, ঘটেছে লিপু হত্যাকা-ের মত ঘটনা। তারপরও হল প্রশাসনের কোন টনক নড়েনি। একটি ঘটনা ঘটার পর দু এক দিন তারা আলোচনা করেই দায় সেরে দেন। কিন্তু এবার আর তা হবে না। হলে সিসি ক্যামেরা লাগিয়ে আর গার্ডদেরকে সচেতন করে সার্বিক নিরাপত্তা দিতে হবে। এরপরও এধরনের ঘটনা ঘটতে থাকলে আমরা বড় ধরনের আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবো।

উল্লেখ্য, গত এক সপ্তাহে রাবির বঙ্গবন্ধু, মাদার বখ্শ, শহীদ জিয়াউর রহমান ও শহীদ সোহ্রাওয়ার্দী হল থেকে ৯টি ল্যাপটপ চুরির ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে মাদার বখ্শ হল থেকেই পাঁচটি ল্যাপটপ ও দামি জিনিস-পত্র চুরি হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদী কর্মসূচির ডাক দেয়।






মন্তব্য চালু নেই