মেইন ম্যেনু

রাজধানীতে কিশোরের হাত-পা বাঁধা গলাকাটা লাশ উদ্ধার

রাজধানীর কদতমতলী থেকে কিশোরের হাত-পা বাঁধা গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন কদমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান।
নিহত ওই কিশোরের নাম বাবু (১৭)। তিনি এয়ারকন্ডিশন ফিটিংসের কাজ করতেন। জুরাইনের কমিশনার রোডে ভাইয়ের সঙ্গে থাকতেন তিনি।
নিহতের বড় ভাই সোহেল জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাবুর সঙ্গে মোবাইল ফোনে শেষবারের মতো কথা হয় তার। ওইসময় বাবু কদমতলীর কুদারবাজারে তাদের কারখানায় ছিল।
সোহেলকে বাবু জানায়, সে বাসায় যাচ্ছে। এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাননি তারা। রাতে বিভিন্ন জায়গায় বাবুর খোঁজ করে যখন হতাশ হয়ে তিনি বাসায় ফিরছিলেন, তখন বাসার অদূরে কুদারবাজার আদর্শরোডে অনেক মানুষের জটলা দেখে এগিয়ে যান তিনি। লোকজনকে জিজ্ঞেস করলে তারা জানান, একজনের লাশ পড়ে আছে রাস্তার পাশে। এগিয়ে গিয়ে তিনি দেখতে পান সেটা তার ভাইয়ের মৃতদেহ।
সোহেল আরো জানান, তার ভাইয়ের সঙ্গে কারো ঝগড়া বিবাদ ছিল না। গত রোজার সময় তাদের বাবা সিদ্দিক বেপারী মারা যান। তারও আগে মারা যান তাদের মা। বাবু তার সঙ্গেই থাকতো এবং তার সাথে থেকেই ব্যবসা করতো। তিন ভাই দুই বোনের মধ্যে বাবু ছিল সবার ছোট।
ময়নাতদন্তের জন্য কদমতলী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম লাশ উদ্ধার করে মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই