মেইন ম্যেনু

যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূর ওপর বর্বর নির্যাতন

নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জে স্বামীকে পুনরায় যৌতুকের টাকা না দেয়ায় শাহানাজ আক্তার নামে এক গৃহবধূর মুখে খুন্তীর ছেকা ও ব্লেড দিয়ে হাতে রক্তাক্ত যখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার রূপসী কাজীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতিতা গৃহবধূ শাহানা আক্তার বলেন, “৬ বছর পুর্বে চট্রগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া থানার চিতাখলা এলাকার মৃত হারুন মিয়ার ছেলে শুক্কুর আলমের সাথে বিয়ে হয় তার। বিয়ের সময় তাকে চার লাখ টাকা যৌতুক দেয়া হয়। এরপর ২ দফায় শুক্কুরকে দুইটি অটো রিক্সা কিনে দেওয়া হয়। সেই অটো রিক্সাও শুক্কুর আলম বিক্রি করে দেয়। তাদের সংসারে সুমাইয়া নামে তিন বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। বর্তমানে তারা উপজেলার রূপসী কাজী পাড়া আবুল হাজীর বাড়িতে ভাড়া থাকেন। শুক্কুর আলম এডিবল অয়েল নামে একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করেন আর শাহানাজ আক্তার একটি গার্মেন্টস কারখানায় চাকুরী করেন। ”

শাহানা আরও বলেন, “চাকুরী ছেরে ব্যাবসা করার জন্য শুক্কুর আলম আবার তার ওপর যৌতুকের টাকা আনার ব্যাপারে চাপ প্রয়োগ করে। ফের যৌতুক না দেয়ায় শুক্রবার সকালে গৃহবধু তার মুখে গরম খুন্তীর ছেকা ও ব্লেড দিয়ে হাত যখম করে। ”

এ ঘটনায় গৃহবধু শাহানাজ বাদি হয়ে রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচাযজ ইসমাইল হোসেন বলেন, “এ ধরনের একাট অভিযোগ পেয়েছি অভিযুক্তদের বিরুদ্বে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। “






মন্তব্য চালু নেই