মেইন ম্যেনু

যোগী আদিত্যনাথকে কটূক্তি করায় ৩ মুসলিম গ্রেপ্তার

মুসলিমদের নিয়ে বক্তব্য দিয়ে বিভিন্ন সময়ে আলোচিত হওয়া ভারতের উত্তরপ্রদেশের নবনিযুক্ত মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে কটূক্তির অভিযোগে পুলিশ তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। সে রাজ্যের পুলিশ জানিয়েছে, বরেলী, গাজিপুর আর আমেথি – এই তিন জেলায় তিনটি পৃথক মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনাচক্রে তিনজনই মুসলমান।

আমেথির পুলিশ বলছে, “আনস সিদ্দিকি নামে এক যুবককে আমরা গ্রেপ্তার করেছি মুখ্যমন্ত্রীর নামে আপত্তিকর পোস্ট করেছিলেন বলে।” আবার বরেলীর ফরিদপুর থানা এলাকা থেকে সালমান আনসারি নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা

হয়েছে, যার বিরুদ্ধে হোয়াটসঅ্যাপে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি এডিট করে একটি অশ্লীল ছবি বানিয়ে তা শেয়ার করার অভিযোগ এসেছে।

গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তির নাম আব্দুল রাজ্জাক। ইনিও যোগী আদিত্যনাথের আপত্তিকর ছবি বানিয়ে শেয়ার করেছিলেন বলে পুলিশ জানিয়েছে। তিনজনের বিরুদ্ধেই আইটি আইনের বিভিন্ন ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

রোববার উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন হিন্দু সন্ন্যাসী যোগী আদিত্যনাথ। দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই একাধিক কসাইখানা বন্ধ করে দেন এবং গো-পাচার বন্ধে পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন।

গোরখপুরের একটি প্রখ্যাত হিন্দু তীর্থক্ষেত্রের প্রধান আদিত্যনাথ। এছাড়াও প্রায় দুদশকেরও বেশী সময় ধরে রাজনীতিও করছেন। মাত্র ২৬ বছর বয়সে প্রথম সাংসদ নির্বাচিত হন। এরপর ৫ বার ভোটে জিতে লোকসভার সদস্য হয়েছেন। মুসলিমদের নিয়ে মন্তব্য করে বারবার আলোচনায় এসেছেন যোগী আদিত্যনাথ।

তার মুসলমান বিরোধী নানা মন্তব্য ব্যাপক বিতর্ক তৈরি করেছে। সেকারণেই যোগী আদিত্যনাথ মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরেই উত্তরপ্রদেশের বিরাট সংখ্যক মুসলমান আশঙ্কায় রয়েছেন। যদিও এবারের ভোটে বিজেপি মুসলমান ভোটারদের একটা বড় অংশের সমর্থন পেয়েছে বলেই বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।






মন্তব্য চালু নেই