মেইন ম্যেনু

যে বাবার দুই হাজার মেয়ে

সুভাষ দেশমুখ একজন রাজনীতিক। সাবেক সংসদ সদস্যও তিনি। এবারো মহারাষ্ট্রের সাউথ শোলাপুর থেকে বিজেপির হয়ে লড়বেন বিধানসভা নির্বাচনে। যেখানে তার নিকটতম প্রার্থী মনে করা হচ্ছে কংগ্রেসের দিলীপ মানেকে।
তাই প্রতিদ্বন্দ্বীকে কুপোকাত করতে এগিয়ে এলেন নিজের চার হাজার মেয়ে এবং তাদের স্বামীরা। আশ্চর্য হলেন সুভাষের এতো মেয়ের কথা শোনে? কিন্তু সত্যিই সুভাষ দেশমুখের রয়েছে এতোগুলো মেয়ে ও তাদের স্বামী।
গত সাত বছর ধরে গণবিয়ে দিয়ে আসছেন সুভাষ। এ সময়ের মধ্যে তিনি দুই হাজার মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন। নিজেকে তিনি ওই মেয়েদের ‘বাবা’ হিসেবে পরিচয় দিতে পছন্দ করেন। আর তিনিই ওইসব মেয়ের স্বামী জোগাড় করেন। সেইসঙ্গে বিয়েতে দেন জামাকাপড়, বাসনপত্রসহ সংসারের অন্য প্রয়োজনীয় জিনিস।
শুধু বিয়ে দিয়েই বাবার কর্তব্য শেষ করেন না সুভাষ। ওই দম্পতিদের মধ্যে যাদের মেয়ে সন্তান হয় তাদের দেয়া হয় ৫ হাজার টাকা করে। সেই মেয়ের ১৮ বছর হলে টাকার পরিমাণ বেড়ে যায়।
সুভাষ জানান, কন্যাদায়গ্রস্ত দরিদ্র পরিবারকে মেয়ের বিয়েতে সর্বস্ব বেচতে দেখেছেন তিনি। তাই তিনি এ গণবিয়ের আয়োজন করেন। এবার সেই ৪ হাজার মেয়ে-জামাই তার সঙ্গে থাকবেন ভোটের প্রচারে।






মন্তব্য চালু নেই