মেইন ম্যেনু

যে তরুণীর হাত ধরে মুসলিম হলেন ১০০০ নারী

ভেরোনিক কুলস, ২৫ বছর বয়সী বেলজিয়ামের একজন মুসলিম নারী। খ্রিস্টান পরিবারে জন্ম নেয়া ভেরোনিক মাত্র ১৭ বছর বয়সে মুসলিম হন। মুসলিম হওয়ার পর মাত্র ৮ বছরে তাঁর হাত ধরে মুসলিম হয়েছেন এক হাজারেরও বেশি বেলজিয়ান নারী। খবর ওয়ার্ল্ডবুলেটিনের।

ভেরোনিক তাঁর মুসলিম বন্ধু-বান্ধবীদের দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে মুসলিম হন। এরপর তিনি তাঁর বাড়ি ছেড়ে বেলজিয়ামের ইসলামিক সেন্টার ফর বেলজিয়ান মুসলিমসের ভবনে বসবাস শুরু করেন। সেখানে তিনি ইসলামকে ভালোভাবে জানেন।

ইসলামকে জানার সময় তিনি তাঁর অতীত জীবনের ভুল সংস্কারগুলো সংশোধন করে নেন। এক সময় তিনি তাঁর পরিবারের সব সদস্যকেই ইসলাম গ্রহণে অনুপ্রাণিত করেন। বর্তমানে তাঁর পরিবার ছাড়াও কাছের আত্মীয়-স্বজনদের অধিকাংশই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

ভেরোনিক বলেন, “আগের ভুল ধারণাগুলো আমাকে ইসলামের প্রকৃত রূপ সম্পর্কে জানতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল।” ইসলামিক সেন্টারে আগত মুসলমানদের ইফতার আয়োজন করতে করতে এই কথা বলেন ভেরোনিক।

তিনি আরও বলেন, “মুসলিম হিসেবে আমাদের উচিত সমাজের নিকট আমাদেরকে আরও সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা।”

বেলজিয়ামের এই ইসলামিক সেন্টারে বর্তমানে এক হাজারেরও বেশি সদস্য রয়েছেন, যাদের অধিকাংশই বেলজিয়ান নারী। ইসলামিক সেন্টারটি বেলজিয়ামের প্রায় ৫০ হাজার মুসলমানের জন্যই উন্মুক্ত। সূত্র: ওয়ার্ল্ডবুলেটিন






মন্তব্য চালু নেই