মেইন ম্যেনু

যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় চিকিত্সক দম্পতির কারাদণ্ড

যুক্তরাষ্ট্রে অনুমোদনহীন ওষুধ ব্যবহারের অভিযোগে এক ভারতীয় চিকিত্সক দম্পতিকে কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত। নিজেদের ক্যানসার ইনস্টিটিউটে অনুমোদনহীন ওই ওষুধ ব্যবহার করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছিলেন তাঁরা।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, অনিন্দ কুমার সেনকে (৬৫) তিন বছরের কারাদণ্ড ও এক লাখ ডলার জরিমানা এবং তাঁর স্ত্রী প্যাট্রিসিয়া পজি সেনকে (৬৬) চার বছরের কারাদণ্ড ও দুই লাখ ডলার জরিমানা করেছেন টেনেসির ওই আদালত। তবে তাঁদের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে না। শাস্তি হিসেবে অনিন্দ কুমারকে ১০০ ঘণ্টা এবং প্যাট্রিসিয়াকে ২০০ ঘণ্টা সেবামূলক কমিউনিটি সার্ভিস দিতে হবে।

মামলার সাক্ষ্যপ্রমাণে দেখা যায়, সেন দম্পতি ২০০৯ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ৩০ কোটি ডলার খরচ করে অনুমোদনহীন কেমোথেরাপি এবং কেমোথেরাপি সহায়ক ওষুধ কেনেন। প্যাট্রিসিয়া কানাডীয় একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক এক পরিবেশকের কাছ থেকে ওষুধগুলো কেনেন। তাঁরা যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়েই সেগুলো ব্যবহার করেন। পাশাপাশি তুরস্ক, ভারত ও ইউরোপে তাঁরা ওই ওষুধ বিতরণ করেন।

সেন দম্পতি যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহারের জন্য যেসব ওষুধের অনুমোদন নিয়েছিলেন, এই ওষুধগুলো ছিল সেগুলো থেকে ভিন্ন নামের। এ ব্যাপারে প্যাট্রিসিয়া তাঁর কর্মীদের বলেছিলেন, এগুলো তিনি শুধুই ক্লিনিকে ব্যবহার করবেন, কারণ এগুলো সস্তা। আদালতে দাখিল করা কাগজপত্রে দেখা যায়, অনুমোদনহীন ওষুধ কিনে সেন দম্পতি প্রায় ১৩ লাখ ডলার মুনাফা অর্জন করে।






মন্তব্য চালু নেই