মেইন ম্যেনু

যশোরে নয়টি হাত বোমা উদ্ধার তিন ছিনতাইকারী আটক

যশোর ডিবি ও সদর ফাঁড়ি পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে ৯ টি শক্তিশালী হাত বোমা উদ্ধার করেছে। এ সময় বোমা নিজ দখলে রাখার অপরাধে পেশাদার দুই ছিনতাইকারীসহ ৩ জনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে, যশোর শহরের আরএনরোডস্থ সোনালী ব্যাংকের উপরে শাহাদৎ হোসেনের পুত্র জিতু ওরফে সাদ্দাম হোসেন ,হাসান আলীর পুত্র সোহেল হোসেন ও পুরাতন কসবা কাজী পাড়া ২য় তলা মসজিদের পাশে বর্তমানে খোলাডাঙ্গা মফিজপাড়ার মৃত নঈম উদ্দিন খানের পুত্র হাফিজুর রহমান ওরফে রিমন।পুলিশ জানায়,বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাত আনুমানিক আড়াইটার সময় সদর পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই বাবুল আক্তারসহ একদল পুলিশ গোপন সুত্রে খবর পেয়ে শহরের আরএনরোডস্থ রানা ষ্টিল প্লাজার গলির মধ্যে থেকে জিতু ওরফে সাদ্দাম হোসেন ও সোহেল হোসেনকে আটক করে। পরে তাদের দখল হতে ৫ টি শক্তিশালী হাত বোমা ও ২টি ছুরি উদ্ধার করে। এ সময় তাদের সহযোগী আরো ২ জন পালিয়ে যায়। পুলিশ জানায়,জিতু ও সোহেল পেশাদার ছিনতাইকারী কয়েকদিন পূর্বে উক্ত স্থানসহ আশপাশ এলাকায় গভীর রাত ছিনতাই সংঘঠিত করে।নাশকতা মূলক কর্মকান্ড ঘটানোর উদ্দেশ্যে বোমা নিজ দখলে রাখে বলে পুলিশ জানায়। অপর দিকে,ডিবি’র একটি টিম বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টায় সদর উপজেলা খোলাডাঙ্গা গ্রামের মফিজ পাড়া জনৈক আইয়ুব হোসেনের বড়ির ছাত্রাবাসে অভিযান চালিয়ে হাফিজুর রহমান ওরফে রিপনকে ৪টি শক্তিশালী হাতবোমাসহ আটক করে। নাশকতা মূলক কর্মকান্ড ঘটানোর উদ্দেশ্যে বোমাগুলি মজুদ করে রাখে বলে পুলিশ জানায়। এসময় তার সহযোগী একই এলাকার সনজিত ও সাত্তার পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে পৃথক দু’টি বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই