মেইন ম্যেনু

যশোরের খবর (১১/৭/১৪)

## যশোরে দু’জন খুন একজন আটক
যশোর অফিস: যশোরে পৃথক ঘটনায় দু’জন খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় নিহত একজনের স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার গোপালপুর রেললাইন থেকে জুয়েল (২০) নামে এক যুবকের ক্ষতবিক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার করে যশোর রেলওয়ে পুলিশ।
জুয়েল কেশবপুর উপজেলার বাইশা গ্রামের হাফিজুর রহমানের ছেলে। পেশায় ভ্যানচালক। জিআরপি যশোর ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মনিরুজ্জামান জানান, সোমবার তার ভ্যানটি চুরি হয়ে যায়। ভ্যানটি তিনি একটি এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে কিনেছিলেন। ভ্যান চুরি হওয়ায় তিনি এনজিওর ঋণ কিভাবে পরিশোধ করবেন তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়ে যান।
এ কারণে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে তার পরিবারের সদস্যরা ধারণা করছে। তবে, স্থানীয় লোকজনের দাবি তাকে হত্যা করা হতে পারে।
অপরদিকে, সদর উপজেলার সাড়াপোল গ্রামে আমিরুল ইসলাম (৪৫) নামে এক রাজমিস্ত্রি খুন হয়েছেন। এ খুনের অভিযোগে তার স্ত্রী ছমিরনকে (৪০) আটক করেছে পুলিশ। চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ এসআই জামালউদ্দিন জানান, বুধবার রাত ১০টার দিকে আমিরুল ও ছমিরন ঘুমিয়ে ছিলেন। রাত ১টার দিকে হঠাৎ ছমিরন চিৎকার দিয়ে বলতে থাকেন তার স্বামী মারা গেছেন। তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে আমিরুলের মুখে রক্ত ও সাদা পাউডার জাতীয় দ্রব্য দেখতে পায়। প্রতিবেশীদের ধারণা, তাকে খুন করা হয়েছে।
এসআই জামাল আরও জানান, পার্শ্ববর্তী মণিরামপুর উপজেলার মথুরাপুর গ্রামের তৈয়ব আলী নামে একজনের সাথে ছমিরনের পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। ৫-৬ মাস আগে তারা পালিয়ে গিয়ে বিয়েও করেন। পরে এলাকার লোকজন বিষয়টি মীমাংসা করে দেন। তবে ছমিরন জানান, তার স্বামী অসুস্থ ছিলেন। রাতে তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এর পর তার মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়।

## যশোরে জাতীয় মূসক দিবস পালিত
যশোর অফিস: যশোরে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতীয় মূসক দিবস-২০১৪ পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে যশোর কাস্টমস কমিশনারেট কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। সুসজ্জিত ঘোড়ার গাড়ি ও রঙ-বেরঙের ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে শোভাযাত্রাটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
শোভাযাত্রায় খুলনার কর অঞ্চলের কর কমিশনার গোলাম মোস্তফা, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট যশোর কমিশনারেটের কমিশনার মোঃ শফিকুল ইসলাম ও বেনাপোল কাস্টম হাউসের কর কমিশনার মাহবুবুজ্জামানসহ ব্যবসায়ীরা অংশ নেন। শোভাযাত্রা শেষে যশোর শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সেরা করদাতাদের সম্মাননা দেওয়া হয়। #

## বাংলাদেশ সমুদ্রসীমা জয়লাভ করায় যশোরে বাস্তহারা ও ছাত্রলীগের মিছিল
যশোর অফিস: ভারতের সাথে সমুদ্রসীমা নিয়ে মামলায় জয়লাভ করায় বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর জেলা বাংলাদেশ বাস্তহারা লীগ ও যশোর জেলা ছাত্রলীগ পৃথক ভাবে শহরে আনন্দ মিছিল করেছে। এ সময় উপস্থিতছিলেন যশোর জেলা শাখার সভাপতি এসএম লুৎফর রহমান,সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান ডেভিড,সাস্থ্য সম্পাদক ডাক্তার আব্দুর রব প্রমুখ। অপর দিকে,যশোর জেলা ছাত্রলীগ ও আনন্দ মিছিল করেছে। এ সময় উপস্থিতছিলেন জেলা ছাত্রলীগের লীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদ। যশোর সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুলতান মাহামুদ বিপুল, ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইদ হোসেন প্রমুখ। আনন্দ মিছিলটি গাড়ী খানা হয়ে শহরের গরীব শাহ সড়কের বঙ্গ বন্ধু মুর‌্যালে এসে শেষ হয়। এ সময় বঙ্গ বন্ধুর স্মৃৃতিতে পুষ্প স্তাবক অর্পন করে।

## যশোরে সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার
যশোর অফিস: যশোর কোতয়ালি থানা পুলিশ হানা দিয়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামি
নুর ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে। সে যশোর শহরতলী ঝুমঝুমপুর রাইফেল স্কুল রোডস্থ কাশেম মিয়ার পুত্র।
বুধবার রাতে যশোর কোতয়ালি থানার এএসআই আমিনুর রহমান হানা দিয়ে নুর ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ জানায় যশোরে একটি মামলায় আমিনুর রহমান সাজাপ্রাপ্ত হয়। এর পর থেকে সে দীর্ঘদিন পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। বুধবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

## যশোরে ফেনসিডিল ইয়াবাসহ এক মহিলা ব্যবসায়ী আটক
যশোর অফিস: যশোর চাঁচড়া ফাঁড়ি পুলিশ শহরের চাঁচড়া ডালমিল মাঠপাড়া এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আবেদা ওরফে আবেকে আটক করেছে। তার কাছ থেকে ফেনসিডিল ও ইয়াবা উদ্ধার করেছে। সে ওই এলাকার লুৎফর রহমানের স্ত্রী।
বুধবার রাতে চাঁচড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জামাল উদ্দিন অভিযান চালিয়ে আবেদা ওরফে আবেকে আটক করেছে। তার ঘর তল্লাশী করে ১৪ বোতল ফেনসিডিল ও ১০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

## কর বৃদ্ধির প্রতিবাদে যশোরে পৌর নাগরিক কমিটির চার দফা কর্মসূচি ঘোষণা
আবিদুর রেজা খান: পৌরকর বৃদ্ধি প্রক্রিয়া স্থগিত এবং নিয়মবহির্ভূত মাস্টার রোলে কর্মচারী নিয়োগ বাতিলের দাবিতে ‘পৌরনাগরিক অধিকার আন্দোলন যশোর’ বুধবার সকালে প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করেছে।
এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আন্দোলন কমিটির নেতা ইকবাল কবির জাহিদ। এ সময় উপস্থিতছিলেন কমিটির আহবায়ক মাস্টার নূরজালাল, আওয়ামী লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম পিকুল, সাবেক পৌর কমিশনার আব্দুল মান্নান, বাংলাদের ওয়ার্কাস পার্টির নেতা জাকির হোসেন হবি, সিপিবি জেলা কমিটির সভাপতি ইলাহদাদ খান, জাসদ নেতা অ্যাডভোকেট আবুল কায়েস প্রমুখ।
লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করেন সম্প্রতি পৌরসভা অস্বাভাবিক হারে পৌরকর বাড়িয়েছে। যা পূর্বের তুলনায় ক্ষেত্রবিশেষে ১২ থেকে ১৩ গুণ। করারোপের ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষ চাতুর্যের আশ্রয় নিয়েছেন, যা গণপ্রতারণার শামিল। আন্দোলন কমিটির নেতা ইকবাল কবির জাহিদ লিখিত বক্তব্যে জানান, খাত ওয়ারী কর নেয়া হলেও সেভাবে সেবা প্রদান করা হচ্ছে না। অধিকাংশ রাস্তা চলাচলের অযোগ্য, আবর্জনার স্তুপ অলিতে-গলিতে, সামান্য বষ্টিতে তলিয়ে যায় পাড়া-মহল্লা, বৈদ্যুতিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত নাগরিক।তিনি অভিযোগ করেন, পানি ব্যবহারে যত সামান্য সুবিধা দিলেও পানি কর আদায় হচ্ছে অস্বাভাবিক হারে। আর এসব কর আদায় করা হচ্ছে সরকারি নীতির দোহাই দিয়ে। যা অযৌক্তিক এবং অগ্রহণযোগ্য। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, নিয়ম হচ্ছে প্রথমে বাড়িকর অ্যাসেসমেন্ট, এরপর করদাতাদের তা অবহিত করা, পৌরসভার নির্দিষ্ট বোর্ডে উপস্থাপন ও গণশুনানী শেষে কর নির্ধারণ। কিন্তু এ প্রক্রিয়ার কিছুই মানেনি বর্তমান পৌর কর্তৃপক্ষ।
সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, নির্বাচনের আগে বর্তমান মেয়র নাগরিক স্বার্থের অগ্রাধিকার ও স্বচ্ছতার প্রতিশ্র“তি দিয়েছিলেন। কিন্তু সেসব ভুলে গিয়ে ক্ষমতায় এসেই কর বাড়িয়েছেন ও নানা অনিয়মের সাথে জড়িয়ে পড়েছেন। বিশেষ করে নিয়ম বহির্ভূতভাবে মাস্টার রোলে লোক নিয়োগ, নিজ লোকদের দিয়ে টেন্ডার অন্যতম। এসব ক্ষেত্রে মোটা অঙ্কের অর্থ লেনদেন হয়েছে বলে জনশ্র“তি আছে। সম্প্রতি পৌর বাজেট প্রদানকালে মেয়র নাগরিকদের জানান, তিনি বিত্তবান ও নতুন স্থাপনার ওপর কর বৃদ্ধি করেছেন। যা সর্বৈব মিথ্যা। সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, কর কমানোর জন্য মেয়র ব্যক্তিগতভাবে করদাতাদের তার সাথে দেখা করার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু এ কাজ তিনি করতে পারেন না। কারণ তিনি সরাসরি কর কমানোর অধিকার সংরক্ষণ করেন না।
এছাড়া প্রোজেক্ট নির্ভর ড্রেন নির্মাণে অপরিকল্পনা, কার্যক্ররহীন পানির মিটার বসিয়ে কেবল অপচয়ই হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়। তাই প্রোজেক্ট পেলেই যে গ্রহণ করতে হবে এ মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসার আহবান জানান নাগরিক কমিটি। এসব দাবির প্রেক্ষিতে নাগরিক কমিটি ৪দফা কর্মসূচি ঘোষণা করে। যার মধ্যে রয়েছে, করারোপ প্রক্রিয়া বন্ধের দাবিতে মেয়রের কাছে গণচিঠি, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি, পাড়া-মহল্লায় আন্দোলন কমিটি গঠন এবং নাগরিকদের মতামতের ভিত্তিতে কর প্রদান বন্ধের কর্মসূচি।

## যশোরে ফেনসিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক
যশোর অফিস: যশোর কোতোয়ালি থানা পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় ৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ ইউসুফ আলীকে আটক করেছে। সে সদর উপজেলার কচুয়া ঘাটকুল গ্রামের মৃত আমানত আলী খানের ছেলে।
মঙ্গলবার রাতে যশোর কোতয়ালি থানার এসআই শোয়েব উদ্দিন আহমেদ চাঁচড়া চেকপোস্ট এলাকার নতুন পাবলিক টয়লেটের সামনে অভিযান চালায়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ী ইউসুফকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে ৫০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

## যশোরে খামার থেকে গরু চুরি
যশোর অফিস: যশোর শহরতলীর ধর্মতলা এলাকায় শামীম মেটাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর মালিক আকবর আলীর খামার থেকে চারটি গরু চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় যশোর কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।
গত ৩ জুলাই রাতে চোরেরা আকবর আলীর বাড়ির মধ্যে বিদেশি উন্নতমানের গরুর খামার থেকে চারটি গাভি চুরি করে সটকে পড়েছে। যার মূল্য আনুমানিক ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা।

## যশোর মহিলা আইনজীবী সমিতি বাংলাদেশি ২৫ শিশুর মধ্যে ১৫ জনকে অভিভাবকের হাতে তুলে দিয়েছে
যশোর অফিস: ভারতে থেকে স্বদেশে প্রত্যাবর্তন হওয়া পাচারের শিকার স্কুলপড়–য়া ২৫ বাংলাদেশি শিশুর মধ্যে ১৫ জনকে তাদের অভিভাবকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। জেলা মহিলা আইনজীবী সমিতি গতকাল বুধবার বিকেলে ১৫জনকে তাদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেয়। এর আগে মঙ্গলবার ২৫ জনকে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে বিএসএফ কর্তৃপক্ষ বিজিবির হাতে তুলে দেয়।
বিদেশে চাকরির প্রলোভনে ২ থেকে ৩ বছর আগে দেশের বিভিন্ন সীমান্তপথ দিয়ে তাদের অনেককে পাচার করা হয়। আবার অনেকে স্বেচ্ছায় কাজের সন্ধ্যানে ভারতে যাওয়ার সময় ধরা পড়ে।
ভারতের বনগাঁ পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিএসএফ তাদের বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবির কাছে হস্তান্তর করে। দেশে ফেরা শিশুদের বয়স ৮ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে।
জেলা মহিলা আইনজীবী সমিতির কো-অর্ডিনেটর অ্যাড. নাছিমা বেগম বলেছেন, প্রথম দফায় ১৫ জনকে অভিভাবকের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। বাকি ১০ জনের অভিভাবক এখনো যোগাযোগ করেনি। বাকিদেরও অভিভাবকের হাতে তুলে দেয়া হবে। এজন্য কোতোয়ালি থানায় জিডি করা হয়েছে। থানা থেকে স্বস্ব অভভাবককে তাদের সন্তানকে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। এর আগে সিআইডি পুলিশ শিশুদের পরিচয় ও ছবি সংগ্রহ করে তাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে।
সিআইডি যশোর জোনের পরিদর্শক হারুণ অর রশিদ বলেছেন, ভারত থেকে আসা শিশুদের পরিবারের হাতে তুলে দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার নায়েব সুবেদার হাফিজুর রহমান জানান, ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে শিক্ষাগ্রহণসহ সেখানে চাকরির লোভ দেখিয়ে ভারতে পাচার করা হয় এসব শিশুকে। আবার অনেকে অবৈধ ভাবে স্বেচ্ছায় অথবা বাবার সাথে ভারতে যায়। পরে ভারতীয় পুলিশের হাতে আটক হয় তারা। এরপর জেলহাজত, সুকন্যা, সংলাপ ও ধ্রুবসহ বিভিন্ন শেল্টার হোমে আশ্রয় হয় তাদের।
ফেরত আসা শিশুরা হলো পিরোজপুরের হুসনাইন, শরিয়তপুরের শাহ আলী, ঢাকার বাবু হোসেন, হাবিবুর ও সোহাগ, সাতক্ষীরার শিবুপদ, তুহিন মণ্ডল, আনিসুর, জসিম, প্রসেনজিত, শামিম, সাইদুল, সবুজ, আমির, করিমুল, হাফিজুর ও রাজা মিয়া, খুলনার সোহাগ গাজী, আহাদ, আব্দুল সালাম, মতিউর ও মেহেদী, যশোরের ওসমান ও মাহবুব এবং নড়াইলের রাকিব।
নারায়ণগঞ্জের বন্দরখানবাড়ি এলাকার জাফর ফারাজির ছেলে বাবু ইসলাম বলেছে, বছর খানেক আগে সে ও তার ভাই নুর ইসলাম কাজের সন্ধানে দালালের সহযোগিতায় সীমান্ত পার হয়। পরে তারা দুজনই পুলিশের হাতে আটক হয়। বাবু মোবাইল সার্ভিসিং-এর কাজ শেখার জন্য ভাইয়ের সাথে ভারতে যাচ্ছিল। সে ফিরে এলেও তার ভাই এখনো ভারতে আটক আছে বলে সে জানিয়েছে।
শিশু হুসনাইন জানায়, বিদেশে চাকরির নামে তাদের কাছ থেকে ৩ থেকে ১০ হাজার পর্যন্ত টাকা নিয়ে ভারতে পাচার করে। দীর্ঘদিন অবর্ণনীয় দুর্ভোগশেষে তারা আজ (মঙ্গলবার) বিকেলে দেশে ফিরেছে।
দেশে ফিরে আসতে পেরে ভাল লাগছে বলে জানায় শিশুরা।
শিশূ সোহাগ শেখের মা নীলিমা জানিয়েছেন, তার বাড়ি পিরোজপুরের চন্ডিপুর গ্রামে। বছর দুয়েক আগে পিতা মান্নান শেখের সাথে সে ও তার দু’বোন লিজা আক্তার এবং সাবিনা আক্তার ভারতে যায়। পরে সেখানে সবাই পুলিশের হাতের আটক হয়। বাবা মান্নান আগেই ফিরে আসেন। কিন্তু লিজা বা সাবিনা এখনো ভারতের জেলে আটক আছে।
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বালিথা গ্রামের প্রসেনজিৎ জানিয়েছে, এক বছর আগে বাবা মনরঞ্জন দাসের সাথে চিকিৎিসার জন্য ভারতে যায়। সীমান্ত পার হওয়ার সময় বিএসএফ’র হাতে আটক হয় তারা। তার বাবা আগেই মুক্তি পেলেও গত মঙ্গলবার দেশে ফেরৎ আসে।

## যশোরে এক প্রতারকচক্র চাকরি দেওয়ার নাম করে অর্ধ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে
যশোর অফিস: প্রতারক চক্রের হোতা স্বপ্ন সাহায্যে সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শরিফুল ইসলাম রিপন প্রাইম ব্যাংকের ইজিক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে চাকরি দেয়ার কথা বলে যশোরের ৮৬ যুবকের কাছ থেকে অর্ধ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বুধবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে ভুক্তভোগিরা এক সংবাদ সম্মেলন করেছে। প্রতারণার শিকার যুবকরা জানান, প্রাইম ব্যাংকের ইজিক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে চাকরি দেয়ার কথা বলে যশোর শহরের বেজপাড়ার বাসিন্দা এবং স্বপ্ন সাহায্যে সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শরিফুল ইসলাম রিপন ২০১২ সালে কর্মী সংগ্রহ শুরু করেন। এ সময় প্রতিষ্ঠানের খুলনা বিভাগীয় রিজিওনাল সেলস রিপ্রিজেনটেটিভ পরিচয় দিয়ে জেলা প্রতিনিধিদের মাসিক বেতন ১৫ হাজার, উপজেলা ১২ হাজার, উপজেলা সহকারীদের ৭ হাজার এবং ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে ৫ হাজার বেতন হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করেন। আর এতে চাকরি করার প্রত্যাশ নিয়ে আবেদন করে কয়েক হাজার যুবক। কিন্তু যাচাই বাছাই শেষে ৮৬ জনের কাছ থেকে জামানত বাবদ বেসিক ব্যাংকের প্রধান শাখায় ০২১-০০১-০০০-৫৪৩৯ একাউন্টে টাকা জমা দিতে বলেন। এ হিসেবে জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিদের কাছ থেকে এক লাখ এবং ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড প্রতিনিধিদের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জামানত গ্রহণ করেন। কিন্তু পরবর্তীতের চাকরি দেননি। ওই জামানতের টাকা নিয়ে কর্মকর্তা শরিফুল হক রিপন ঢাকায় চম্পট দেন। এখন তার মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে।
ক্ষতিগ্রস্তরা আরও জানান, টাকা দিয়ে চাকারির আশায় এখন তারা পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। আর প্রতারক শরিফুল ইসলাম রিপন যশোরের বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। তিনি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে প্রধান কার্যালয় হিসেবে ঢাকার গুলশান-১. বীর উত্তম, একে খন্দকার রোডের ঠিকানা উল্লেখ করা হলেও তার কোন অস্তিত্ব নেই বলে ভুক্তভোগীরা উল্লেখ করেছেন। ফলে ভুক্তভোগীরা তাদের টাকা ফেরত ও প্রতাকরদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।
তবে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে প্রাইম ব্যাংক যশোর শাখার ম্যানেজার হাফিজুর রহমান জানান, প্রতারক চক্র তাদের নাম ভাঙ্গিয়ে এ কাজ করেছে। ওই নামের কোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই। তবে তিনি ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজী হননি।

## যশোরে যুবকের আত্মহত্যা
যশোর অফিস: যশোরে সোহেল (২৮) নামে এক যুবক কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছে। সে যশোর সদর উপজেলা খোজারহাট গ্রামের আব্দুল আজিজের পুত্র।
মঙ্গলবার দুপুরে সোহেল পারিবারিক কলহেরজের ধরে পরিবারের লোকজনের সাথে বাকবিতন্ড হয়। এক পর্যায় কাউকে কিছু না বলে কীটনাশক পান করে। এ সময় তার বাড়ীর লোকজন তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসাধিন অবস্থায় বুধবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়েছে। এ ব্যাপারে অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

## যশোরে সাজাপ্রাপ্ত আসামী আটক
যশোর অফিস: যশোর কোতয়ালি পুলিশ হানা দিয়ে সাজাপ্রাপ্ত আসামী সবুজকে আটক করেছে। সে যশোর শহরের চাঁচড়া পশ্চিম পাড়ার করিমের পুত্র।
মঙ্গলবার রাতে যশোর কোতয়ালি থানার এএসআই রবিউল ইসলাম তার বাড়ীতে হানা দেয়। এ সময় সবুজকে আটক করে। পুলিশ জানায় একটি মামলায় তার দুই
বছর সশ্রম কারাদন্ড প্রাপ্ত হয়। এর পর থেকে সে দীর্ঘদিন পালিয়ে বেড়াচ্ছিল ।
স্থানীয় একটি সুত্রজানায় এএসআই রবিউল ইসলাম সবুজকে আটক করে ১৫ হাজার টাকা দাবি করে। তার দাবিকৃত টাকা না দেওয়ায় তাকে থানা হাজতে সোপর্দ করেছে।

## যশোরে পুলিশ ফাঁড়ির পাশে ডাকাতি ॥ আটক -১২
আবিদুর রজো খান :যশোরে পুলিশ ফাঁড়ির পাশে একটি বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। সোমবার শহরের লোনঅফিস পাড়ায় সেহরির সময় সদর পুলিশ ফাঁড়ির পাশের একটি বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ১৪-১৫ জনের ডাকাত দল জিয়াউর রহমান নামে এক মাছ ব্যবসায়ীর পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত-পা বেঁধে নগদ ৯৫ হাজার টাকা, আড়াই ভরি ওজনের সোনার অলঙ্কারসহ প্রায় তিন লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়।
ঘটনার সময় ডাকাতদের ছোড়া বোমার আঘাতে এক মুসলি¬ আহত হন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১২ জনকে আটক করেছে। এর মধ্যে দু’জনকে শনাক্ত করেছে ভুক্তভোগী পরিবার।
জিয়াউর রহমান জানান, তিনি লোনঅফিস পাড়ার আকরাম হোসেনের নির্মাণাধীন তৃতীয় তলা বাড়ির নিচ তলায় ভাড়া থাকেন। সোমবার সেহরির সময় শাবল দিয়ে ১৪-১৫ জনের একদল ডাকাত জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকে তাকে, তার স্ত্রী নূরজাহান বেগম, নয় বছরের ছেলে রাতুল, বাড়িতে বেড়াতে আসা শ্বশুর নূর মোহাম্মদ শেখ, শাশুড়ি ফরিদা বেগমকে অস্ত্রের মুখে দড়ি দিয়ে হাত-পা বাঁধে। এরপর টেপ দিয়ে মুখ বাঁধে। পরে আলমারি খুলে নগদ ৯৫ হাজার টাকা ও আড়াই ভরি ওজনের সোনার অলঙ্কার নিয়ে যায়।
বাড়ির মালিক আকমল হোসেনের স্ত্রী সাজেদা খাতুন সাথী জানান, সেহরির সময় শেষ হওয়ার তিন মিনিট আগে তিনি পানি নেওয়ার জন্য নিচে নামেন এবং এক ডাকাতকে দেখতে পেয়ে চিৎকার দেন। এ সময় ডাকাতরা একটি বোমা ছুড়ে পালিয়ে যায়। বোমার স্পি¬ন্টারে আল-আমিন নামে এক মুসলি¬ আহত হন।
ঘটনার পর কোতোয়ালি থানা পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১২ জনকে আটক করে। তারা হলেন, সদর উপজেলার খোজারহাট গ্রামের খায়রুল ইসলাম, মফিজুর রহমান, আবদুর রহমান, মহাদেবপুর গ্রামের রাশেদুল ইসলাম, চুড়ামনকাটি এলাকার মাসুম বিল¬াহ, দৌলতদিহির রাসেল, বড় ভেকুটিয়ার শুকচাঁদ, সুজলপুরের আসাদুল ইসলাম, মিরা মানিক, মণিরামপুর উপজেলার মহাদেবপুর গ্রমের রেজাউল ইসলাম ও বাহিরদিয়া গ্রামের রাসেল।
বাড়ির মালিক আকরাম হোসেন জানান, তার বাড়ির তৃতীয় তলায় কাজ চলছে। সেখানে লেবার হিসেবে কাজ করছে আটক খায়রুল ও মফিজুর। তারা সোমবার রাতে বাড়িতে না গিয়ে পালিয়ে যায়। রাতে তাদের সঙ্গীরা এসে ডাকাতি করে। ভুক্তভোগী জিয়াউর রহমান জানান, তার ছেলে রাতুল দু’জনকে চিনতে পারে। এরা হচ্ছে, খায়রুল ও মফিজুর। এ ঘটনায় কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।
ঘটনার পরপরই যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল হক, সহকারী পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মিলু মিয়া বিশ্বাসসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

## যশোরে কলেজ শিক্ষার্থীদের অবরোধ
যশোর অফিস: বিরতিহীনভাবে পরীক্ষা পদ্ধতি বাতিলের দাবিতে ও পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের প্রতিবাদে যশোরে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন কলেজের শিক্ষার্থীরা।
যশোর প্রেসক্লাবের সামনের মুজিব সড়কে মঙ্গলবার সকালে অবস্থান নিয়ে কয়েকশ’ শিক্ষার্থী বিক্ষোভ করতে থাকেন। এ সময় শহরে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। এর আগে তারা একই স্থানে মানববন্ধন করেন। বিক্ষোভকালে শিক্ষার্থীরা জানান, বিরতিহীনভাবে পাবলিক পরীক্ষার ব্যাপারে শিক্ষামন্ত্রী যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তাতে পরীক্ষার্থীদের মারাত্মক অসুবিধায় পড়তে হবে। শিক্ষাব্যবস্থাও বিঘিœত হবে।
তারা অবিলম্বে এ সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানান। একই সঙ্গে পাবলিক পরীক্ষাসহ সব পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ না হলে সারাদেশে ছাত্র-জনতা রাজপথে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে বাধ্য হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন।

## যশোরে ইয়াবাসহ একজন আটক
যশোর অফিস: যশোর র‌্যাব ক্যাম্পের সদস্যরা শহরের বকচর হুশতলা বৌ বাজার এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় দেড়শ’ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক বিক্রেতা আশিককে আটক করেছে। সে যশোর সদর উপজেলা মহাদেবপুর গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীর হোসেনের পুত্র।
সোমবার রাতে র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের সদস্যরা গোপন সংবাদে ভিত্তিতে শহরের বকচর হুশতলা বৌ বাজার এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় মাদক বিক্রেতা আশিককে আটক করে। তার কাছ হতে এক’৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে। এ ব্যপারে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই