মেইন ম্যেনু

যশোরের কিছু খবর (২৯/১০/১৪)

পরিবহন শ্রমিক খুনিদের আটকের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ: যশোরে সন্ত্রাসীদের হামলায় তরু নামে এক পরিবহন শ্রমিক খুন হয়েছেন। সে সদরের রামনগর পিকনিক কর্ণার এলাকার লালু মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে শ্রমিকরা শহরের মণিহার এলাকায় অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পরে পুলিশ এসে খুনিদের আটকের আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেয়। নিহত তরুর ভগ্নিপতি শামীম জানান, গত ২০ অক্টোবর সন্ধ্যায় তরু রামনগর তেলপাম্পের পাশে একটি চায়ের দোকানে বসে ছিল। এসময় ওই এলাকার সন্ত্রাসী রাশেদ, ইসমাইল ও আওয়ালসহ ৪/৫জন ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করে। এতে সে গুরুত্বর আহত হয়। এ সময় ওই এলাকার সাধারন লোকজন তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। তার অবস্থা অবনতি হলে তাকে ঢাকা ধানমন্ডির একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই হাসপাতারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে যশোরে পরিবহন শ্রমিকরা শহরের মনিহার বাসস্টান্ড এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। সমাবেশে বক্তৃতা করেন ডালিম হোসেন, মিজানুর রহমান মিজু, নিতাই ড্রাইভার, মনো ড্রাইভার, রইচ ড্রাইভার, শামীম স্টেটার, আব্দুল খালেক প্রমুখ। এ সময় বক্তারা অবিলম্বে খুনিদের আটকের দাবি করে। পরে সেখানে পুলিশ এসে খুনিদের আটকের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয় পরিবহন শ্রমিকরা।

জামায়াত অফিসে অভিযান ॥ একজন আটক: মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে যশোর কোতয়ালী থানা পুলিশ জেলা জামায়াতে ইসলামীর কার্যালয়ে অভিযান চালায়। এ সময় অফিস পিয়ন বায়েজিদ বোস্তামিকে আটক করে। বই,প্রচারপত্র ও ব্যানার-ফেস্টুন জব্দ করেছে। অভিযান শেষে পুলিশ জামায়াত অফিসে তালা লাগিয়ে দিয়েছে।
যশোর কোতয়ালী থানার ওসি ইনামুল হক জানান জেলা জামায়াতের কার্যালয়ে অস্ত্র-বোমাসহ নেতাকর্মীরা অবস্থান করছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে সহকারী পুলিশ সুপার মিলু মিয়া বিশ্বাসের নেতৃত্বে ওই কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে জামায়াত নেতাকর্মীরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ স্থানীয়দের উপস্থিতিতে কার্যালয়ে তল্লাশি চালিয়ে ৩-৪শ’ বই,প্রচারপত্র, ব্যানার, ফেস্টুন উদ্ধার করে। এ সময় বায়েজিদ নামে এক কর্মীকে আটক করা হয়। এদিকে জেলা জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, বিনা কারণে পুলিশ তাদের জেলা অফিসে অভিযান চালিয়েছে এবং অফিস পিয়ন বায়েজিদ বোস্তামিকে আটক করে নিয়ে গেছে।

এক জনের আত্মহত্যা: যশোরে আকাশ (১৮) নামে এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সে যশোর সদরের বাহাদুর পুর গ্রামের লিটনের পুত্র। রোববার সকালে আকাশ পারিবারিক কলহের জের ধরে পরিবারের সদস্যদের সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায় সে ঘরের আড়ার সাথে গলায় দঁড়ি দেয়। এ সময় বাড়ির লোকজন টেন পেয়ে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নেয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

জামায়াতের চার নেতা কর্মী আটক: যশোর কোতয়ালি থানা পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় জামাতের চার নেতা কর্মীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে,ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলা ইসলামপুর গ্রামের সুলতান আহম্মেদের পুত্র মমিনুর রহমান,সামানতা গ্রামের আনসার আলীর পুত্র তুষার ইমরান,চুয়াডাঙ্গা জেলা আলমডাঙ্গা উপজেলার হাটাবাঘলিয়া গ্রামের লোকমান হোসেনের পুত্র শফিউল হাসান ও যশোর সদর উপজেলা চাঁদপাড়া গ্রামের মৃত আফতাব মোল্যার পুত্র ইমান আলী। রোববার ভোর রাতে যশোর কোতয়ালি থানার এসআই হেমায়েত হোসেন শহরতলী ঝুমঝুমপুর ব্রীজে সংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় মমিনুর রহমান, তুষার ইমরান শফিউল হাসান ও ইমান আলীকে আটক করে। পুলিশ জানায় আটককৃতরা ২০ দলের শরীক বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির ডাকা রোববার সকাল সন্ধ্যা হরতাল সমর্থনে রোববার ভোর রাত ৪ টার পর জামায়াত শিবিরের ১শ’ থেকে দেড়শ’ নেতাকর্মী নাশকতা মূলক কর্মকান্ড ঘটানোর উদ্দেশ্যে ঝুমঝুমপুর ব্রীজের পশ্চিম পাশের মাথায় অবস্থান নেয়। ওই স্থান থেকে তাদের াাটক কনা হয়েছে। এ ঘটনায় আটক জামায়াতের চার নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত ১শ’২০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

ফেনসিডিল ইয়াবাসহ দুই ব্যবসায়ী আটক: যশোর সদর ফাঁড়ির পুলিশ শহরে পৃথক অভিযান চালায়। এ সময় ইয়াবা, ফেনসিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে,যশোর শহরের পূর্ব বারান্দী পাড়ার হোসেন গাজীর পুত্র জাকির হোসেন ওরফে টুটুল ও সাতক্ষীরা জেলার মুকুন্দপুর গ্রামের ইব্রাহিমের পুত্র সবুর।
শনিবার গভীর রাতে যশোর সদর ফাঁড়ির এটিএসআই মিজানুর রহমান শহরের সার্কিট হাউজ এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় সবুরকে আটক করে। তার শরীর তল¬াশী করে ২২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে।
অপর দিকে ওই ফাড়ির এটিএসআই বাবুল আক্তার শহরের পশ্চিম বারান্দী পাড়া কদমতলা মোড়ে অভিযান চালায়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ী টুটুলকে আটক করে। তার কাছ থেকে ৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

শান্তিপূর্ণ হরতাল পালিত ৭৪জন আটক: ইসলামিক দলগুলোর ডাকা হরতাল যশোরে শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে। তবে, হরতালকে সামনে রেখে পুলিশ বিএনপি-জামায়াতের ৭৪ নেতা-কর্মীকে আটক করে। হরতাল চলাকালে শহরে কমবেশি রিকশা,ভ্যান ও ইজিবাইক চলাচল করে। দোকানপাট খোলা ছিল। অফিস আদালতের লোকসমাগম কম ছিল। দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল করেনি। ট্রেন বিমান চলাচল স্বাভাবিক ছিল। শহরের কোথাও হরতালের সমর্থনে পিকেটিং করতে কাউকে দেখা যায়নি। হয়নি কোনো মিছিল সমাবেশও। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির বস্ত্র ॥ শিল্পমেলার উদ্বোধন: যশোরে রবিবার থেকে মাসব্যাপী বস্ত্র ও শিল্প মেলা শুরু হয়েছে। পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির (পুনাক) উদ্যোগে শুরু হয়েছে এ মেলা। বিকেলে যশোরের জেলা প্রশাসকের সহধর্মিনী রুনা লায়লা ট্রাফিক ফাঁড়ির মাঠে মেলার উদ্বোধন করেন। মাসব্যাপী এ মেলার ব্যবস্থাপনায় রয়েছে খুলনার চামেলী ট্রেডাস। মেলায় ৬০টি স্টল থাকছে বলে জানিয়েছে আয়োজকরা। উদ্বোধনের সময় পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান, তার স্ত্রী ও পুনাক সভাপতি ফাতেমা-তুজ জোহরা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল হক, ফয়েজ আহমেদ (ডিএসবি), সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রেশমা শারমিনসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্কুলছাত্রী অপহরনের ঘটনায় মামলা: যশোর এমএসটিপি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে ফুসলিয়ে অপহরণের অভিযোগে কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। রোববার বিকেলে মামলাটি করেন শহরের লোন অফিস পাড়াস্থ আমিনুল ইসলামের স্ত্রী রিনা ইসলাম দীপা। আসামিরা হলো শহরের ঘোপ নওয়াপাড়া এলাকার আকাশ, তার পিতা শাহজাহান, মা নাহিদা আক্তার জুলি, একই এলাকার তপন সরকারের ছেলে তমাল এবং বেজপাড়া বিহারী কলোনী এলাকার মৃত নাগুর ছেলে টনি। এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, দীপার মেয়ে জারিন তাজনিম (১৪) এমএসটিপি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। স্কুলে যাতায়াতের পথে আসামি আকাশ প্রায় সময় জারিনকে উত্যক্ত করতো। তাকে কু-প্রস্তাব দিতো। কিন্তু এতে রাজি হয়নি জারিন। পরে তাকে অপহরণ করার পরিকল্পনা করে। গত ২৪ অক্টোবর বিকেলে জারিন স্কুল থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। বাড়ির কাছাকাছি পৌছালে আকাশসহ অন্যান্য আসামি তাকে ফুঁসলিয়ে একটি সাদা রং এর প্রাইভেটকারে করে নিয়ে যায়। তাকে অনেক খোঁজাখুজি করা হয়েছে। কিন্তু না পেয়ে তিনি থানায় মামলা করেছেন বলে উল্লেখ করেছেন।

বিদেশী মদসহ দুই ব্যবসায়ী আটক: যশোর কোতয়ালি থানা ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে সদস্যরা পৃথক অভিযান চালায়। এ সময় বিদেশীমদসহ দুই ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। আটককৃতরা হচ্ছে যশোর সদরের বিরামপুর কালীতলা এলাকার রতন বিশ্বাসের পুত্র লিটন বিশ্বাস,একই এলাকার আব্দুল গফফারের পুত্র মামুন আব্দুল কাইয়ূম।
বৃহস্পতিবার গভীর রাতে যশোর কোতয়ালি থানা পুলিশ শহরের’ জেস টাওয়ারের সামনে হানাদিয়ে এক বোতল মদসহ লিটন ও মামুন আব্দুল কাইয়ূমকে আটক করে। অপর দিকে ওই রাতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যরা শহরের কারবালা ওয়াপদা গ্যারেজ এলাকার রফিকুল ইসলামের বাড়ির ভাড়াটে মৃত আব্দুল কাদেরের পুত্র লিটন হোসেনের ঘরে তল্লাশী চালায়। এ সময় ৪২ বোতল বিদেশী মদ উদ্ধার করে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যদের উপস্থিতিটের পেয়ে অবৈধ ব্যবসায়ী লিটন হোসেন পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে যশোর কোতয়ালি থানায় পৃথক মামলা হয়েছে।

গোলাম আযমের মৃত্যুতে যশোরে গায়েবানা জানাজা: শনিবার সকালে শহরের মোল্যাপাড়া এলাকায় যুদ্ধাপারাধী মামলায় দন্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা অধ্যাপক গোলাম আযমের গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জানাজায় ইমামতি করেন শিবিরের যশোর শহর শাখার সভাপতি জাহিদুল ইসলাম। জানাজা পূর্ব সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যশোর শিবিরের সেক্রেটারি আজহারুল ইসলাম। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সোহেল রানা, সাইফুল আলম, মারুফ হাসান, আবু সালেহ আকরাম, হাফেজ আব্দুল্লাহ-আল-মামুন, শাহিনুজ্জামান, আবু রায়হান, আব্দুল্লাহ -আল-মাসুদ প্রমুখ।

যশোর শিক্ষাবোর্ড কর্মচারী ইউনিয়নের পাঁচ নেতার পদত্যাগ: যশোর শিক্ষাবোর্ডে নতুন করে রেজিস্ট্রেশন(২১২১) পাওয়া শিক্ষাবোর্ড কর্মচারী ইউনিয়নের ১০ নেতার মধ্যে পাঁচ নেতা পদত্যাগ করেছেন। তাদের না জানিয়ে এ ধরনের কমিটির অনুমোদন নেয়ার কারণে এ পদত্যাগ করেছেন তারা। যুগ্ম শ্রম পরিচালক খুলনা এ রেজিস্ট্রার অব ট্রেড ইউনিয়ন্স খুলনা বরাবর এ পদত্যাগপত্র জমা দেয়া হয়েছে। পদত্যাগ করেছেন আব্দুল্লাহ-মুজিবুলের নেতৃত্বাধীন কমিটির সহ-সভাপতি হযরত আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবলু, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুল মান্নান এবং কার্যনির্বাহী সদস্য রমজান আলী।

মণিরামপুরে কামালের খুনিরা সরকার দলীয় নেতাদের আশ্রায়ে- সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ: যশোরের মণিরামপুরে কৃষকলীগ নেতা শফি কামালের খুনিরা সরকার দলীয় কোনো নেতার শেল্টারে রয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়েছে। এ কারণে হত্যা মামলার আসামীরা আটক হচ্ছে না বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন নিহতের ছোট ছেলে মামুন। শনিবার প্রেসক্লাব যশোরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন তিনি। পিতা হত্যার বিচার চাইতে তার পরিবার প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করতে চান বলে জানান মামুন। মামুন দাবি করেন, বিগত ৫ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এ্যাডঃ খান টিপু সুলতানের পক্ষে কাজ করতে গিয়ে খুন হন তার পিতা শফি কামাল। ঐ সময় নাকি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বিএনপি সমর্থক ওমর ফারুকের নেতৃত্বে শফি কামালকে খুন করা হয়। এ ঘটনায় ২১জনকে আসামী করে তার বড় ভাই সোহেল বাদী হয়ে মামলা করেন। কিন্তু আসামীদেরআটক করা হচ্ছে না। কয়েকজন আদালতে আত্মসমর্পন করে ১৫ দিনের মধ্যে জামিন পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয় সংবাদ সম্মেলনে। আসামীরা কেন আটক হচ্ছে না সেই প্রশ্নের জবাবে তিনি আওয়ামী লীগের একটি অংশের শেল্টারে থাকার ইঙ্গিত দেন। স্থানীয় এমপি শফি কামাল হত্যা মামলার আসামীদের শেল্টার দিচ্ছেন কি না সেই প্রশ্নের জবাবে কোনো মন্তব্য করেননি মামুন। সংবাদ সম্মেলনে পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

যশোরে আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচ ব্যাপক অনিয়ম দুর্নীতি-প্রশ্নবিদ্ধ জেলা ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি: শুক্রবার যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-শ্রীলংকা আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচে জেলা ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আসাদুজ্জামান মিঠু ব্যাপক অনিয়ম দুর্নীতি করেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার বিকেলে স্থানীয় শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে যশোর সদর ৩ আসনের সাংসদ ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহম্মেদ সংবাদ সম্মেলনে মিঠুর নানা ধরনের অনিয়ম সম্পর্কে প্রশ্ন তোলেন। এ সময় সংবাদ সম্মেলনের আয়োজকরা কিছুটা বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ডঃ হুমায়ুন কবীর, পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব কবীর। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিতছিলেন সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সভাপতি নূর ইসলাম ও যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাকিরুল কবীর রিটন আসাদুজ্জামান মিঠুর কাছে নানা অনিয়ম সম্পর্কে প্রশ্ন করলে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। পরে এমপি কাজী নাবিল আহম্মেদ আগামীতে এ ধরনের আন্তর্জাতিক খেলা সম্পন্ন করতে আরো যতœশীল হওয়া এবং সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করেন।

যশোর জেলা পরিষদ কর্মচারী সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন: যশোর জেলা পরিষদ কর্মকর্তা-কর্মচারী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। এই নির্বাচনে লুৎফর রহমান সভাপতি ও সরওয়ার হোসেন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। শনিবার সকাল থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। ২৮জন ভোটারের মধ্যে ২৭ জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন কমিশনার জেলা পরিষদের সচিব নুরুজ্জামান ফলাফল ঘোষণা করেন। শনিবার বিকাল ৩টায় সমিতির ৩টি পদে ৭জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এতে সভাপতি পদে লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক পদে সরওয়ার হোসেন। এছাড়া যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে জহুরুল ইসলাম নিবাচিত হয়েছেন । সমিতির ১৬ পদের মধ্যে এর আগে ১৩জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।






মন্তব্য চালু নেই