মেইন ম্যেনু

‘মুসলমানদের দেখলেই হামলা করছে, এমনকি গুলি করে মেরেও ফেলছে’

মুসলমানদের দেখলেই হামলা করছে ইসলাম বিদ্বেষী বর্ণবাদী পশ্চিমারা। এমনকি গুলি করে মেরেও ফেলছে। একারণে দেখে যেন মুসলমান মনে না হয়, তা নিশ্চিত করতে হিন্দু পুরুষদের কপালে ‘তিলক’ এবং নারীদের ‘টিপ’ পরার পরামর্শ দিয়েছেন ভারতের এক হিন্দু নেতা।

এই নেতার নাম তপন ঘোষ। তিনি হিন্দু সংহতি নামের একটি সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় প্রকৌশলী শ্রীনিবাস কুচিভোটলা (৩২) একজন মার্কিন নৌসেনার গুলিতে নিহত হওয়ার ঘটনায় শনিবার হিন্দুদের তিলক ও টিপ পরার পরামর্শ দেন তিনি।

তপন ঘোষ বলেন, শ্রীনিবাসকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণকারী মার্কিনী বুঝতে পারেননি যাকে টার্গেট করা হয়েছে তিনি মুসলমান না, বরং হিন্দু। তাই ভুল করে মধ্যপ্রাচ্যের মানুষ ভেবে শ্রীনিবাসকে গুলি করেন তিনি।

শ্রীনিবাসের কপালে তিলক থাকলে তাকে হিন্দু বলে চেনা যেত। ফলে তিনি মুসলিম বিদ্বেষী হেট ক্রাইমের শিকার হতেন না বলেও দাবি এ হিন্দু নেতার।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বঘোষিত সমর্থক তপন ঘোষ। তিনি প্রাণরক্ষার জন্য মুসলমানদেরও হিন্দু বা খ্রিস্টান প্রতীক ধারণ করতে পরামর্শ দিতে আলেমদের আহ্বান জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, বুধবার কানসাসের ওলাথ শহরের একটি বারে আড্ডা দেয়ার সময় শ্রীনিবাসকে লক্ষ্য করে গুলি করেন মার্কিন নৌসেনা অ্যাডাম পিউরিনটন (৫১)।

ঘটনার সময় শ্রীনিবাস ও তার বন্ধু অলোক মাদাসানিকে ‘মধ্যপ্রাচ্যীয়’ সম্বোধন করেন অ্যাডাম। তাদের ‘আমাদের দেশ ছেড়ে বেড়িয়ে যাও’ বলে হুমকি দিয়ে কয়েক দফা গুলি ছোঁড়েন তিনি।

এরপর অ্যাডাম ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে মিসৌরির একটি বারে গিয়ে সেখানকার কর্মীদের বলেন দু’জন মধ্যপ্রাচ্যীয়কে গুলি করেছেন তিনি। এ কথা শুনে বারের লোকজন পুলিশকে ফোন করলে তারা এসে অ্যাডামকে আটক করে।
সূত্র: এবিপি আনন্দ ও এনডিটিভি






মন্তব্য চালু নেই